আমেরিকায় করোনায় দৈনিক মৃত্যু বাড়ল ৪৮ শতাংশ, সংক্রমণেও বৃদ্ধি

আমেরিকায় করোনায় দৈনিক মৃত্যু বাড়ল

জাস্ট দুনিয়া ডেস্ক: আমেরিকায় করোনায় দৈনিক মৃত্যু বাড়ল প্রায় ৪৮ শতাংশ। মঙ্গলবার এ কথা জানালেন আমেরিকার সেন্টার ফর ডিসিজ কন্ট্রোল অ্যান্ড প্রিভেনশন (সিডিসি)-এর ডিরেক্টর রশেল ওয়ালেনস্কি। একই সঙ্গে তিনি জানিযেছেন, করোনাভাইরাসের ডেল্টা ভ্যারিয়েন্টের হানায় ফের সংক্রমণ ছড়াচ্ছে আমেরিকায়। চলতি মাসে নতুন করে যাঁরা সংক্রমিত হয়েছেন, তাঁদের মধ্যে ৮৩ শতাংশই ডেল্টা ভ্যারিয়েন্টে আক্রান্ত। অথচ চলতি মাসের প্রথম সপ্তাহে নতুন করে যাঁরা কোভিড আক্রান্ত হচ্ছিলেন, তাঁদের মধ্যে ৫০ শতাংশের শরীরে ডেল্টা ভ্যারিয়েন্টের সন্ধান মিলছিল।

নয়া পরিসংখ্যান ঘুম কেড়ে নিয়েছে আমেরিকার প্রশাসনের। বৃহস্পতিবার সেনেটে সিডিসি-র ডিরেক্টর জানিয়েছেন, আমেরিকার প্রায় দুই-তৃতীয়াংশ কাউন্টিতে টিকাপ্রাপ্তের সংখ্যা ৪০ শতাংশেরও কম। তার ফলেই সংক্রমণ দ্রুত ছড়াচ্ছে। আর ৮৩ শতাংশ ক্ষেত্রেই আক্রমণের মূলে করোনার ডেল্টা ভ্যারিয়েন্ট। শুধু সংক্রমণই নয়, আমেরিকায় ডেল্টা ভ্যারিয়েন্টের হানায় দৈনিক মৃত্যুর সংখ্যাও বেড়েছে। সরকারি হিসেব অনুযায়ী, গত কয়েক সপ্তাহে আমেরিকায় করোনায় দৈনিক মৃত্যু বাড়ল প্রায় ৪৮ শতাংশ। দিনে গড়ে করোনায় ২৩৯ জনের মৃত্যু হচ্ছে।

বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা (হু) জানিয়েছে, পৃথিবীর কম করে ১০০টি দেশে ছড়িয়ে পড়়েছে কোভিডের এই ডেল্টা ভ্যারিয়েন্ট। এখনও পর্যন্ত করোনার যে যে ভ্যারিয়েন্ট দেখা গিয়েছে, তার মধ্যে সবচেয়ে বেশি সংক্রামক এই ডেল্টা। সে কারণে বিষয়টি অত্যন্ত উদ্বেগের বলে জানিয়েছেন হোয়াইট হাউসের মুখ্য স্বাস্থ্য উপদেষ্টা অ্যান্টনি ফসি।

তবে এর আগে গবেষকরা জানিয়েছিলেন, কোভিডে আক্রান্ত হওয়ার পর পরই হাসপাতালে ভর্তি করানোয় আমেরিকায় কোভিডে মৃত্যুর হার ৩৮ শতাংশ কমেছিল। গত বছরের মার্চ থেকে মে মাসের পরিসংখ্যানের উপর ভিত্তি করে ওই সমীক্ষা করা হয়েছিল। পরে সেপ্টেম্বর থেকে নভেম্বরে সেই হার আরও কমে যায়। ওই সময় যদিও কোনও টিকাই বাজারে আসেনি। গবেষকরা আমেরিকার ৩১টি স্টেট-এর ১০৭টি হাসপাতালের কোভিড রোগীকে পরীক্ষা করেছিলেন। তার ফল হিসাবে দেখা যায়, গত বছরের মার্চ ও এপ্রিলে যেখানে হাসপাতালগুলিতে কোভিড রোগীদের মৃত্যুর হার ছিল ১৯.১ শতাংশ, সেখানে তা মে ও জুন মাসে কমে দাঁড়ায় ১১.৯ শতাংশে। জুলাইয়ে তা আরও কমে হয় ১১ শতাংশ। সেপ্টেম্বর থেকে নভেম্বরে তা আরও কমে হয় ১০.৮ শতাংশ। ওই সময় মোট কোভিড রোগীদের মাত্র এক-তৃতীয়াংশকে ইনটেনসিভ কেয়ার ইউনিটে ভর্তি করানো প্রয়োজন হয়। প্রতি ৫ জন কোভিড রোগীর মধ্যে মাত্র ১ জনকে ভেন্টিলেশনে রাখার প্রয়োজন হয়েছিল গত বছরের সেপ্টেম্বর থেকে নভেম্বরে।

এ বছর সেখানে আমেরিকায় করোনায় দৈনিক মৃত্যু বাড়ল প্রায় ৪৮ শতাংশ।

 

প্রতিদিন নজর রাখুন জাস্ট দুনিয়ার খবরে

(জাস্ট দুনিয়ার ফেসবুক পেজ লাইক করতে ক্লিক করুন)