পুজো শপিং আর প্যান্ডাল হপিং আবারও বাংলাকে ঠেলে দিল বিপদের মুখে

পুজো শপিং আর প্যান্ডাল হপিং

জাস্ট দুনিয়া ব্যুরো: পুজো শপিং আর প্যান্ডাল হপিং শেষ হয়েছে কিন্তু ছেড়ে গিয়েছে বড় ছাপ। যা একটু একটু করে ক্রমণ মাথা তুলে দাঁড়াচ্ছে। বাংলায় কোভিড সংক্রমণ বেড়েছে দ্বিগুণ। বিশেষ করে কলকাতায়। যার ফলে সোমবার থেকে আবার খুলছেসেফ হাউস ও কোয়ারেন্টাইন সেন্টারগুলো। শুক্রবার শুধু কলকাতাতেই কোভিডং সংক্রমিত হয়েছেন ২৪২ জন। গত শুক্রবার যা ছিল ১২৭। এবং অবাক করার বিষয় হল যাঁরা সংক্রমিত হয়েছেন তাঁদের মধ্যে ১৫০ জনের ডবল ভ্যাকসিন হয়ে গিয়েছে। এ ছাড়া ১৫ জনের প্রথম ডোজ নেওয়া হয়েছে। আর এই পুরো ঘটনার জন্য মানুষ নিজে দায়ী সেটা পরিষ্কার চোখে আঙুল দিয়ে দেখিয়ে দিচ্ছে প্রশাসন।

কলকাতা মিউনিসিপ্যালিটির স্বাস্থ্য দফতরের অধিকর্তা অতিন ঘোষ এদিন বলেন, ‘‘স্বাস্থ্যকর্মীদের সব ছুটি বাতিল করা হয়েছে। আমরা দেখেছি প্রচুর মানুষ পুজো উপভোগ করতে রাস্তায় নেমেছিলেন। তাঁদের অনেকেই মাস্ক ব্যবহার করেননি। আমরা পুরো বিষয়টির দিকে লক্ষ্য রাখছি।’’ পরিস্থিতি এখনও নিয়ন্ত্রণে রয়েছে বলেই মনে করা হচ্ছে। এবং মানুষের কোভিড নিরাপত্তা ব্যবস্থা না মানাকেই আবার ঊর্ধ্বমুখী হওয়ার কারণ বলে মনে করা হচ্ছে। সব থেকে বড় সমস্যা ২০০-র উপর মানুষের সংক্রমণের কোনও লক্ষ্মণ নেই।

শুধু কলকাতা নয়, গোটা বাংলাতেই কোভিড সংক্রমণ হু হু করে বাড়ছে পুজো পরবর্তী সময়ে। গত ৭ দিনে বাংলায় কোভিড সংক্রমণ ৪৫১ থেকে ৮৩৩-এ পৌঁছেছে। যা রীতিমতো আতঙ্কের। মনে করা হচ্ছে আগামী সপ্তাহে তা আরও ভয়ঙ্কর আকাড় নেবে। তার পরই পরিস্থিতির পুরো একটা চিত্র পাওয়া যাবে বলে মনে করা হচ্ছে। মনে করা হচ্ছে যদি সংক্রমণ বাড়ে এবং তার প্রভাব কম থাকে তাহলে বুঝতে হবে রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা বেড়েছে। যদি দেখা যায় হাসপাতালে ভর্তির সংখ্যা এবং মৃত্যুর সংখ্যা বাড়ছে তাহলে আমরা আবার ফিরে যেতে পারি প্রথম এবং দ্বিতীয় পর্যায়ে।

এর মধ্যেই নাইট কার্ফু নতুন করে শুরু করা হচ্ছে। যা থাকবে রাত ১১টা থেকে ভোর ৫টা পর্যন্ত। উত্তর ২৪ পরগনায় একদিনে আক্রান্ত হয়েছেন ১১৬ জন। গত ২৪ ঘণ্টায় বঙ্গে মৃত্যু হয়েছে ১২ জনের। বর্তমানে রাজ্যে পজিটিভিটি রেট ২.১০ শতাংশ।একদিনে সুস্থ হয়েছেন ৭৯২ জন। কলকাতায় সোমবার থেকে খোলা হবে ট্যাংরা চম্পামণি মাতৃসদন সেফ হোম, হরেকৃষ্ণ শেঠ লেন সেফ হোম এবং তপসিয়া কোয়ারেন্টাইন সেন্টার।

প্রতিদিন নজর রাখুন জাস্ট দুনিয়ার খবরে

(জাস্ট দুনিয়ার ফেসবুক পেজ লাইক করতে ক্লিক করুন)