Sachin Tendulkar ফিরে দেখলেন ছেলেবেলার দিনগুলো

Sachin Tendulkar

জাস্ট দুনিয়া ডেস্ক: এখন তিনি অবসরে। এখন তিনি স্বামী, বাবা, মেন্টর আরও কত কিছু। কিন্তু এই দীর্ঘ রাস্তাটা পেরিয়ে আসার পর যখন তিনি ফিরে দেখেন তখন কেমন লাগে? তিনি Sachin Tendulkar । মুম্বইয়ের বান্দ্রা থেকে বাসে করে প্রতিদিন পৌঁছে যেতেন শিবাজী পার্কে। কারণ অবশ্যই ক্রিকেট কোচিং। প্রথমে দাদার হাত ধরে যাতায়াত শুরু। তার পর একটু বড় হলে একাই উঠে পড়তেন বাসে। বাসের একদম পিছনের সিটে জানলার পাশে বসে দেখতে দেখতে কখন যেন চলে আসত শিবাজী পার্ক। কখনও কখনও তো বাইরে দৃশ্য দেখতে দেখতে এতটাই মগ্ন হয়ে যেতেন যে স্টপেজ ছেড়ে বাস বেড়িয়ে যেত আর তিনি নামতে ভুলে যেতেন। আর যেদিন যেদিন এটা হত সেদিন তাঁর দারুণ মজা হত।

তার পর কখন যেন তিনি ভারতীয় ক্রিকেটের লিটল মাস্টার হয়ে উঠলেন। হয়ে উঠলেন বিশ্ব ক্রিকেটের বড় ত্রাস। তিনি মাঠে থাকলে বোলাররা আতঙ্কে থাকত। হয়ে উঠলেন ভারতীয় ক্রিকেটের ওয়ান্ডার বয়। ম্যাচের পর ম্যাচ ব্যাট হাতে লড়ে গিয়েছেন। ১০০ টেস্ট! সহজ কথা নয় আর সেখানে তিনি ডবল সেঞ্চুরি হাঁকিয়েছেন। ঘড়ির কাটা ঘুরেছে নিজের ছন্দে। ভারতীয় ক্রিকেটে এসেছে নতুন তারকা। তবে সচিন তেন্ডুলকরের জায়গা কেউ নিতে পারেননি। তাঁর পরিচয় তিনি নিজেই।

এত বছর পর বান্দ্রার সেই বাস স্ট্যান্ডে ৩১৫ নম্বর বাসের সামনে দাঁড়িয়ে নস্টালজিক হয়ে পড়ছিলেন মাস্টার ব্লাস্টার। পিছনের গেট দিয়ে উঠে নিজের ছোটবেলার সেই সিটে বসেও পড়লেন তিনি। ফিরে গেলেন কী সেই ছোটবেলার দিলগুলোয়? ভিজে উঠল কি চোখে কোণাটা? না, স্মৃতি সততই সুখের। দেখুন সেই ভিডিও—

প্রতিদিন নজর রাখুন জাস্ট দুনিয়ার খবরে

(জাস্ট দুনিয়ার ফেসবুক পেজ লাইক করতে ক্লিক করুন)