লিওনেল মেসি থাকছেন বার্সেলোনাতেই, জানালেন নিজেই

লিওনেল মেসি

জাস্ট দুনিয়া ডেস্ক: লিওনেল মেসি কী থেকে যাচ্ছেন বার্সেলোনায়? বৃহস্পতিবার তেমনটাই মনে হচ্ছিল তাঁর বাবা ও এজেন্ট হর্ঘের মন্তব্যে। মেসির বার্সেলোনা ছাড়ার ইচ্ছের কথা ছড়িয়ে পড়তেই বিভিন্ন ক্লাব থেকে মোটা অঙ্কের অফার পৌঁছতে থাকে মেসির কাছে। ম্যানচেস্টার সিটি তো পৌঁছেই যায় বার্সেলোনা কর্তৃপক্ষের কাছে। কিন্তু শুক্রবার মেসির বাবার ইঙ্গিতকে নিজে মুখেই স্বীকার করে নিলেন মেসি। জানিয়ে দিলেন তিনি থাকছেন বার্সাতেই আগামী মরসুমটা। তবে তার মধ্যেই প্রকাশ্যে চলে এল ক্লাব প্রেসিডেন্য বার্তেমৌয়ের বিরুদ্ধে মেসির ক্ষোভের কথা।

মেসি বলেন বার্সাকে তাঁর জীবনের ক্লাব বলে ব্যাখ্যা করেছেন এবং তার বিরুদ্ধে কোনও আইনি পথে যেতে তিনি নারাজ বলেই জানিয়েছেন। তিনি বলেন, ‘‘প্রেসিডেন্ট সব সময়ই বলেছেন মরসুমের শেষে আমি সিদ্ধান্ত নিতে পারি আমি কী করতে চাই। আমি ফ্রি প্লেয়ার হয়ে যাব। কিন্তু শেষে এসে তিনি তাঁর কথা রাখলেন না। এখন ওরা ১০ জুনের আগে আমি কেন জানাইনি সেটা দেখাচ্ছে। সে কারণে আমি থেকে যাচ্ছি না হলে আমারে ট্রান্সফার ফি বাবদ ৭০০ মিলিয়ন ইউরো দিতে হত।’’

বুধবার তিনি জানিয়েছিলেন মেসির পক্ষে বার্সায় থাকা মুশকিল। কিন্তু ঠিক ২৪ ঘণ্টার মধ্যে ১৮০ ডিগ্রি পাল্টি খেয়ে তিনি জানিয়ে দিলেন বার্সাতেই থেকে যেতে পারেন মেসি। তাঁর বাবার বক্তব্য অনুযায়ী সেই সম্ভাবনাই বেশি বলে মনে করছিল স্পেনের সংবাদ মাধ্যম। সেটাকেই সত্যি প্রমান করলেন মেসি।

মেসির বার্সা ছাড়ার সব থেকে বড় বাধা হয়ে দাঁড়িয়েছিল ক্লাবের সঙ্গে চুক্তি। যার ফলে ২০২১ পর্যন্ত তিনি ফ্রি প্লেয়ার হতে পারবে‌ ‌না। আর তার পরও ক্লাব ছাড়তে চাইলে তাঁকে দিতে হবে ৭০০ মিলিয়ন ইউরো। তবে ফ্রি প্লেয়ার হিসেবে ক্লাব ছাড়তে হলে মেসিকে ১০ জুনের মধ্যে জানাতে হত কিন্তু তিনি তেমনটা করেননি।

তবে এ বছরটা একদম অন্যরকম। করোনাভাইরাস আক্রমণের কারণে দীর্ঘদিন বন্ধ ছিল বিশ্ব ফুটবল। এর পর যখন ফুটবল শুরু হয় তখন মরসুম শেষ হওয়ার সময় পেরিয়ে গিয়েছে। সাধারণত, মরসুম শেষ হয় জুনে। এ বার সেটা শেষ হয়েছে অগস্টে। এমনই যুক্তি দেখিয়েছেন লিওনেল মেসি যা ফেলে দেওয়ার মতো নয়। তাঁর মতে, এবার জুন নয় মরসুম শেষের  সময় হওয়া উচিৎ অগস্ট। তবে এই যুক্তি মানছে না ক্লাব।

ক্লাবের সঙ্গে বোঝাপড়া করতে বার্সেলোনা উড়ে যান মেসির বাবা। দীর্ঘ বৈঠকের পর মেসির পক্ষে কোনও সমাধান সূত্র বেরিয়ে আসেনি। বরং ক্লাব প্রেসিডেন্ট বার্তেমৌ মেসিকে আরও দু’বছর ক্লাবে থাকার অনুরোধ জানিয়েছেন বলে জানা যাচ্ছে। তবে মেসি যে তা মেনে নেবেন না তা স্পষ্ট।

তিনি বলেন, ‘‘এ ছাড়া আরও একটি রাস্তা হল আইনি পথে হাঁটা। যে পথে আমি হাঁটতে চাই না। বার্সার বিরুদ্ধে আঅমি কখনওই আদালতে যাব না। এটা সেই ক্লাব যাকে আমি ভালবাসি, যে আমাকে সব কিছু দিয়েছে। আমার জীবনের ক্লাব এটি। আমার জীবন এই ক্লাবই তৈরি করেছে।’’

এর মধ্যেই খবর রটে গিয়েছিল ইউরোপের সংবাদ মাধ্যমে মেসিকে পেতে ছাঁপিয়েছে ম্যান সিটি। ৭০ কোটি ইউরোর বিনিময়ে মেসির যোগ দেওয়ার কথা ছড়িয়েও পড়েছিল সিটিতে। তবে এখনও মেসিকে নিয়ে কোনও সিদ্ধান্ত হয়নি। লিওনেল মেসি বার্সা ছাড়তে এতটাই মরিয়া যে সিটি যদি সেই টাকা মিটিয়ে দেয় তাহলে তিনি চলেও যেতে পারেন বার্সা ছেড়ে। নতুন করে আবার পেপ গুয়ার্দিওয়ালাকে কোচ হিসেবে পাবেন সেখানে।

(খেলার জগতের আরও খবর জানতে ক্লিক করুন এই লিঙ্কে)

(জাস্ট দুনিয়ার ফেসবুক পেজ লাইক করতে ক্লিক করুন)