আইপিএল থেকে সরল ভিভো, বিসিসিআইকে চিঠি ফ্র্যাঞ্চাইজিদের

আইপিএল থেকে সরল ভিভো

জাস্ট দুনিয়া ডেস্ক: আইপিএল থেকে সরল ভিভো যারা এতদিন টাইটেল স্পনসর ছিল। লাদাখে ভারত-চিন সংঘাতের পর থেকেই দেশ জুড়ে চিন বিরোধী প্রচার শুরু হয়। বন্ধ করে দেওয়া হয় সব চিনা অ্যাপ। চিনের সামগ্রি ব্যবহারের বিরুদ্ধে শুরু হয় প্রচার। সোশ্যাল মিডিয়া এবং সংবাদ মাধ্যমে তা আরও বেশি করে উঠে আসে। মনে করা হচ্ছে ভিভোর সরার পিছনে এই সবই কাজ করছে। সঙ্গে ভারতকে চাপে রাখার চেষ্টাও হতে পারে। ১৯ সেপ্টেম্বর থেকে ১০ নভেম্বর পর্যন্ত সংযুক্ত আরব আমিরশাহীতে বসতে চলেছে ১৩তম ইন্ডিয়ান প্রিমিয়ার লিগের আসর।

২৯ মার্চ থেকে আইপিএল শুরু হওয়ার কথা থাক‌লেও কোভিচ-১৯ অতিমাররি কারণে তা ক্রমশ পিছতেও থাকে। শেষ পর্যন্ত অক্টোবর-নভেম্বরে টি২০ বিশ্বকাপ স্থগিত হওয়ায় সেই উইন্ডোতে আইপিএল করার পরিকল্পনা করে বিসিসিআই। তবে ভারতের করোনাভাইরাস পরিস্থিতি এখনও সুস্থ নয়। সেকারণে দেশের বাইরে নিয়ে যেতে হচ্ছে।

তবে এত বাধা কাটিয়ে শেষ পর্যন্ত আইপিএল হচ্ছে। কিন্তু তার টাইটেল স্পনসর সরে যাওয়ায় বড় ধাক্কা খেল বিসিসিআই। মঙ্গলবারই আইপিএল গভর্নিং কাউন্সিল টুর্নামেন্টের বিভিন্ন বিষয় নিয়ে আলোচনায় বসেছিল। সেখানেও বিসিসিআই-এর প্রেস রিলিজে লেখা হয়েছিল, ‘ভিভো আইপিল’। কিন্তু কিছুক্ষণের মধ্যেই সেই নাম সরে যাওয়ার খবর এল।

২০১৮তে বিসিসিআই-এর সঙ্গে টাইটেল স্পনসর হিসেবে পাঁচ বছরের চুক্তিতে ২১৯৯ কোটি টাকা দিয়েছিল ভিভো। রবিবারই বিসিসিআই-র তরফে ইঙ্গিত দেওয়া হয়েছিল, সব স্পনসরই থাকছে। কিন্তু এ যেন তীরে এসে তরী ডোবা। যদিও এর জন্য আইপিএল আটাকাবে না।

মঙ্গলবার আইপিএল গভর্নিং কাউন্সিলের মিটিংয়ে, ফ্র্যাঞ্চাইজিদের তরফে লিখিতভাবে জানতে চাওয়া হয়েছিল দলের সদস্যদের পরিবার এবং স্ট্যান্ডার্ড অপারেটিং সিস্টেম নিয়ে। কিছু ফ্র্যাঞ্চাইজি হোটেল এবং চার্টার্ড বিমানের ব্যবস্থাও করতে শুরু করে দিয়েছে। অনেকেই জানিয়েছে তারা ২০ অগস্টের পর দুবাই উড়ে যাবে।

এই মিটিংয়েই সিদ্ধান্ত হয়েছে সংযুক্ত আরব আমিরশাহীর তিনটি শহরে হবে খেলা। তার মধ্যে রয়েছে দুবাই, শারজা ও আবু ধাবী। তবে ফ্র্যাঞ্চাইজিদের সব থেকে বড় মাথা ব্যথার কারণ প্লেয়ার থেকে সাপোর্টস্টাফ সবার পরিবার। ৫৩ দিনের টুর্নামেন্টে পরিবারকে কীভাবে বায়ো-সিকিওর পরিবেশে রাখা হবে।

কয়েকদিনের মধ্যেই ফ্র্যাঞ্চাইজিরে সঙ্গেও আলোচনায় বসা হবে বলে সূত্রের খবর। তবে, বিসিসিআই এই সব কিছুর আগে অপেক্ষা করছে ভারত সরকারের তরফে অনুমতি যাতে সংযুক্ত আরব আমিরশাহীতে টুর্নামেন্ট আয়োজন করা যায়।

(খেলার জগতের আরও খবর জানতে ক্লিক করুন এই লিঙ্কে)

(জাস্ট দুনিয়ার ফেসবুক পেজ লাইক করতে ক্লিক করুন)