এয়ার ইন্ডিয়া টাটার, ৬৮ বছর পর মালিকানা ফেরায় আবেগান্বিত রতন টাটা

এয়ার ইন্ডিয়া টাটার

জাস্ট দুনিয়া ডেস্ক: এয়ার ইন্ডিয়া টাটার, এই বার্তা বেশ কিছুদিন আগেই ছড়িয়ে পড়েছিল গোটা দেশে। কিন্তু সেই সময় দু’পক্ষই তা অস্বীকার করে। শেষ পর্যন্ত সেই জল্পনাই সত্যি হল। ১৮ হাজার কোটি টাকার বিনিময়ে এয়ার ইন্ডিয়া কিনে নিল টাটা গোষ্ঠী। শুক্রবার এয়ার ইন্ডিয়ার মালিকানা ফেরৎ পেল টাটা কোষ্ঠী। রতন টানা টুইট করে লেখেন, ‘‘ওয়েলকাম ব্যাক এয়ার ইন্ডিয়া’’। এয়ার ইন্ডিয়ার সঙ্গে যে তাঁর আবেগ জড়িয়ে রয়েছে তা এই বার্তাতেই স্পষ্ট। তিনি তৎকালীন একটি এয়ার ইন্ডিয়ার ছবি পোস্ট করেছেন। যেখানে জেআরডি টাটার সঙ্গে রয়েছেন বিমানকর্মীরা।

তিনি টুইটে লেখেন, ‘‘টাটা গ্রুপ এয়ার ইন্ডিয়ার স্বত্ত্ব জিতে নিয়েছে, এটা একটা দারুণ খবর! যা বিমান শিল্পের ক্ষেত্রে টাটা গোষ্ঠীর উপস্থিতিকে তরান্বিত করবে। আবেগের দিক থেকে, এয়ার ইন্ডিয়া একসময় ডেআরডি টাটার নেতৃত্বে সাফল্য পেয়েছিল। বিশ্বের নাম করা বিমান সংস্থার মধ্যে একটি ছিল। টাটার সামনে আবার সেই গৌরব ফিরে পাওয়ার সুযোগ রয়েছে যা অতীতে ছিল। জেআরডি টাটা আজ আমাদের মধ্যে থাকলে খুব খুশি হতেন। বর্তমান সরকারকে ধন্যবাদ তাঁদের নতুন উদ্যোগ যেখানে  প্রাইভেট সেক্টরের জন্য রাস্তা খুলে দেওয়া হচ্ছে।’’

১ আগস্ট, ২০২১ পর্যন্ত এয়ার ইন্ডিয়ার মোট ৬১,৫৬২ কোটি টাকা ঋণ রয়েছে, এর মধ্যে ১৫,৩০০-র দায়িত্ব নেবে যে পাবে মালিকা। সুতরাং,  ৪৬,২৬২ কোটি টাকা এয়ার ইন্ডিয়া অ্যাসেটস হোল্ডিং লিমিটেড (এআইএএইচএল) -এ স্থানান্তরিত হবে। এআইএইচএল হল সরকার কর্তৃক গঠিত একটি এসপিভি। সিভিল অ্যাভিয়েশন সচিব রাজীব বনস‌ল বলেন, নতুন সংস্থা এক বছরের জন্য কোনও কর্মীকে ছাটাই করবে না। যদি এক বছর পর করা হয় তবে তা স্বচ্ছাবসর দেওয়া হবে। সব কর্মীদের গ্র্যাচুইটি এবং প্রভিডেন্ট ফান্ডের সুবিধে দেওয়া হবে।

তিনি আরও জানান, এই মুহূর্তে এয়ার ইন্ডিয়ার কর্মী সংখ্যা ১২,০৮৫। তার মধ্যে ৮,০৮৪ জন স্থায়ী এবং বাকি ৪,০০১ জন চুক্তিভিত্তিক। এয়ার ইন্ডিয়া এক্সপ্রেসে] কর্মী সংখ্যা ১,৪৩৪ জন। এয়ার ইন্ডিয়ার এখনও পর্যন্ত ক্ষতির পরিমাণ ৭০ হাজার কোচি টাকা। এবং সরকারের প্রতিদিন ২০ কোটি টাকা ক্ষতি হয় প্রায়। ২০২০-র ডিসেম্বরে এয়ার ইন্ডিয়া বিক্রির কথা ঘোষণা করেছিল সরকার। এই মাসের শুরুতেই টাটার পাশাপাশি স্পাইসজেটও এয়ার ইন্ডিয়ার জন্য দরপত্র দিয়েছিল।

১৯৩২-এ টাটা এয়ার সার্ভিস নামে এয়ার ইন্ডিয়ার যাত্রা শুরু হয়।  সরকারি স্বীকৃতি মেলে ১৯৫৩-তে। ১৯৭৭ পর্যন্ত সংস্থার চেয়ারম্যান ছিলেন জেআরডি টাটা। ১৯৬০-এ প্রথম জেট এয়ারক্র্যাফট চালু নয় নিউ ইয়র্ক উড়ে যায়। এই মুহূর্তে এয়ার ইন্ডিয়ার অধিনে রয়েছে ৪,৪০০ আন্তদেশীয় এবং ১,৮০০ আন্তর্জাতিক বিমান। বিশ্ব জুড়ে বিমান ওঠানামার জন্য ৯০০ জায়গা রয়েছে এয়ার ইন্ডিয়ার অধিনে। টাটা গ্রুপ যুগ্মভাবে ভিস্তারা ও এয়ার এশিয়ারও মালিক।

প্রতিদিন নজর রাখুন জাস্ট দুনিয়ার খবরে

(জাস্ট দুনিয়ার ফেসবুক পেজ লাইক করতে ক্লিক করুন)