জীবন্ত দগ্ধ রাজস্থানের পুরোহিত, মৃত্যুর আগে বলে গেলেন নাম

জীবন্ত দগ্ধ রাজস্থানের পুরোহিত

জাস্ট দুনিয়া ডেস্ক: জীবন্ত দগ্ধ রাজস্থানের পুরোহিত, মৃত্যুর কোলে ঢলে পড়ার আগে জানিয়ে গেলেন তাঁর খুনের কারণ। মন্দিরের জমি নিয়ে চলছিল বিবাদ আর তার জন্যই পুড়ে মরতে হল বাবুলাল বৈষ্ণবকে। জয়পুর থেকে ১৭৭ কিলোমিটার দূরের গ্রাম করৌলির রাধাকৃষ্ণ মন্দিরে পুজো করতেন তিনি। সেখানেই কিছু মানুষ তাঁর গায়ে কেরোসিন ঢেলে আগুন লাগিয়ে দেন।

হাসপাতালে মৃত্যুর আগে তিনি পুলিশকে জানিয়েছেন, মন্দিরের পক্ষ থেকে তাঁকে ১৩ বিঘা জমি দেওয়া হয়েছিল চাষের জন্য। শুধু পুজো করে সংসার চালাতে সমস্যা হচ্ছিল। সেকারণেই এই সিদ্ধান্ত নেয় মন্দিরের ট্রাস্টিবোর্ড এবং মন্দিরের দায়িত্বও তুলে দেন তাংর হাতে। যাতে দেখভাল এবং পুজো নিয়মিত হয়।

এটা কোনও নতুন ঘটনা নয়। এমনটা এখানে হয়েই থাকে। এর পর সেই জমির একাংশে তিনি বাড়ি তৈরির কাজ শুরু করেন। জমির মাঝে থাকা ঢিবি সমান করে ফেলেন চাষের সুবিধের জন্য। যা মানতে পারেননি স্থানীয় মীনা সম্প্রদায়ের মানুষজন। এবার শুরু হয় কোন জমি কার তা নিয়ে বিবাদ। গ্রামের মোরলরা পুরোহিতের সমর্থনে এগিয়ে এলেও শেষরক্ষা হল না।

পাল্টা দিতে সেই জমিতেই পুরোহিতের বিরোধীপক্ষ একটি ঘর তৈরি করেন। স্বাভাবিকভাবেই বাধা দেয় পুরোহিত। পাশেই জমা করা ছিল পুরোহিতের বাজরার স্তুপ। সেখানে আগুন লাগিয়ে দেওয়া হয়। এর সঙ্গেই আগুন লাগিয়ে দেওয়া হয় পুরোহিতের গায়েও।

স্থানীয় পুলিশ জানিয়েছেন, মৃত্যুর আগে ছ’জনের নাম জানিয়েছেন তিনি যাঁরা তাঁর গায়ে আগুন  লাগিয়েছিল। খুনের মানলা দায়ের হয়েছে।

(দেশের সব খবর জানতে এখানে ক্লিক করুন)

(জাস্ট দুনিয়ার ফেসবুক পেজ লাইক করতে ক্লিক করুন)