তিনটি কৃষি বিলেই সই রাষ্ট্রপতির, আইনের নোটিফিকেশন জারি করল সরকার

তিনটি কৃষি বিলেই সই রাষ্ট্রপতির

জাস্ট দুনিয়া ডেস্ক: তিনটি কৃষি বিলেই সই রাষ্ট্রপতির, তার পরেই নোটিফিকেশন জারি করা হল সরকারের তরফে। কৃষি বিল রাষ্ট্রপতির সম্মতিতে এখন কৃষি আইনেই পরিণত হল।

এই কৃষি বিল নিয়ে ইতিমধ্যেই গোটা দেশ উত্তাল। কৃষকেরা আন্দোলনে নেমেছেন। পঞ্জাব, হরিয়ানা-সহ অনেক জায়গাতেই বন্‌ধের ডাক দিয়েছেন কৃষকেরা। চলছে ‘রাস্তা রোকো’, ‘রেল রোকো’র মতো কর্মসূচি। তার মধ্যেই রবিবার ওই তিনটি কৃষি বিলেই সই রাষ্ট্রপতির, ফলে দেশ জুড়ে ঝড় বইছে কৃষক মহলে।


দেশের আরও খবরের জন্য এখানে ক্লিক করুন

গত সপ্তাহেই ওই তিনটির মদ্যে দুটো বিল রাজ্যসভায় ধ্বনি ভোটে পাশ হয়। তা নিয়ে বিরোধীরা তুমুল হইহট্টগোল শুরু করে। রাজ্যসভার আট সাংসদকে বাদল অধিবেশনের জন্য সাসপেন্ড করা হয়। কিন্তু বিতর্ক তাতে থামেনি। বিরোধীদের তরফে রাষ্ট্রপতিকে অনুরোধ করা হয়েছিল, ওই বিলে তিনি যেন সই না করেন। পুনর্বিবেচনার জন্য ওই বিল ফেল সংসদে ফেরত পাঠানোর আর্জিও জানানো হয়েছিল বিরোধীদের তরফে। কিন্তু রাষ্ট্রপতি সে আর্জি যে কানে তোলেননি তা তাঁর এ দিনের সিদ্ধান্তে স্পষ্ট। তবে তিনি এ নিয়ে কোনও মন্তব্যও করেননি।

গত জুনেই মোদী সরকার কৃষি সংক্রান্ত তিনটি অধ্যাদেশ জারি করে। তার পর সেই অধ্যাদেশ বিলে পরিণত করে সংসদে পাশ করে রাষ্ট্রপতির কাছে পাঠানো হয়। এ দিন তিনি তাতে সইও করে দিয়েছেন। কিন্তু গোটা বিষয়টি কৃষকদের পরিপন্থী বলে গোড়া থেকেই দাবি করে আসছিল বিরোধীরা। চাষি মহলও ওই বিলকে ‘কৃষক বিরোধী’ তকমা দিয়েছে। রাষ্ট্রপতির সইয়ের পর সরকারের তরফে এ দিনই নোটিফিকেশন জারি করা হয়েছে নতুন ওই আইন নিয়ে। ফলে কৃষক এবং বিরোধীদের সমস্ত দাবি এবং বক্তব্যকে নস্যাৎ করে সরকার পক্ষ যে নিজেদের সিদ্ধান্তে অটল, তা এ দিন আরও এক বার স্পষ্ট হয়ে গেল।

এই বিল পাশ নিয়ে গত রবিবার রাজ্যসভায় তুমুল হইচই হয়। সেই সময় চেয়ারে ছিলেন রাজ্যসভার ডেপুটি চেয়ারম্যান হরিবংশ সিং। কিন্তু ওই দিন সরকারের বয়ান এবং ভিডিও ফুটেজে যা দেখা গিয়েছে, তা সম্পূর্ণ বিন্ন বলে এ দিন দাবি করেছে দিল্লির এক জাতীয় সংবাদমাধ্যম। সে দাবি পুরোপুরি সত্যি বলেও জানিয়েছে বিরোধী শিবিরের একাংশ।


(জাস্ট দুনিয়ার ফেসবুক পেজ লাইক করতে ক্লিক করুন)