মুম্বইয়ে নির্যাতিতার মৃত্যু, সিসিটিভি দেখে গ্রেফতার এক

হায়দরাবাদে গণধর্ষণ করে তরুণীকে খুনহায়দরাবাদে গণধর্ষণ করে তরুণীকে খুন

জাস্ট দুনিয়া ডেস্ক: মুম্বইয়ে নির্যাতিতার মৃত্যু  সরকারি হাসপাতালে। মুম্বইয়ের সাকিনাকা এলাকায় একটি টেম্পোর মধ্যে ৩৪ বছরে এক মহিলাকে ধর্ষণ করার অভিযোগ উঠেছে। শুধু তাই নয় ধর্ষণের পর তার শরীরে লোহার রড ঢুকিয়ে দেওয়ার মতো ঘটনাও ঘটেছে। যা আরও একবার মনে করিয়ে দিয়েছে দিল্লি নির্ভয়া কাণ্ডকে। মা নিয়ে তোলপাড় হয়ে গিয়েছিল গোটা দেশ। মহারাষ্ট্রের মুখ্যমন্ত্রী উদ্ধব ঠাকরের অফিসের তরফে এই ঘটনাকে লজ্জাজনক বলে ব্যাখ্যা করা হয়েছে এবং জোড়াল প্রতিবাদ করা হয়েছে। সঙ্গে অভিযুক্তদের কড়া শাস্তির কথা বলা হয়েছে।

শুক্রবার রাত ৩.৩০ নাগাদ পুলিশের কন্ট্রোল রুমে একটি ফোন যায়। সেই ফোনে এক ব্যক্তি জানান, এক মহিলার ওপর একজন ব্যক্তি অত্যাচার করছে। সেই অভিযোগ পেয়ে পুলিশ সঙ্গে সঙ্গেই ঘটনাস্থলে পৌঁছে সেই মহিলাকে উদ্ধার করে এবং স্থানীয় হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হয়। যেখানে এ ঘটনা ঘটেছে সেই রাস্তা দিনের বেলায় স্বাভাবিক আরও অন্যান্য মুম্বইয়ের রাস্তার মতোই ব্যস্ত থাকে কিন্তু রাতের অন্ধকারে সেই রাস্তাতেই যে এমন ঘটনা ঘটে যেতে পারে তা কল্পনাতীত।

তবে সেই ঘটনার সিসিটিভি ফুটেজ পুলিশের হাতে এসেছে। ছবি খুব স্পষ্ট না হলেও যেখানে দেখা যাচ্ছে কিছুর ওপর দাঁড়িয়ে রয়েছে এক ব্যক্তি যা দেখে মনে হচ্ছে নিচে পড়ে থাকা কোনো দেহ। প্রাথমিক তদন্তে টেম্পোর ভেতরে রক্তের দাগ পাওয়া গেছে। ঘটনার সময় সেই জায়গায় রাস্তার ওপর দাঁড়ানো ছিল টেম্পোটি। মনে করা হচ্ছে তার ভিতরেই ধর্ষণ করা হয়েছে। পিটিআই-এর খবর ৪৫ বছরের মোহন চৌহান নামে এক ব্যক্তিকে গ্রেফতার করা হয়েছে। তার বিরুদ্ধে ধর্ষণ ও খুনের চেষ্টার মামলা দায়ের করা হয়েছে। ২১ সেপ্টেম্বর পর্যন্ত পুলিশ হেফাজতে রাখা হবে তাঁকে।

(প্রতিদিন নজর রাখুন জাস্ট দুনিয়ার খবরে)

(জাস্ট দুনিয়ার ফেসবুক পেজ লাইক করতে ক্লিক করুন)