মোহিত ডি রামের পদত্যাগ নির্বাচন কমিশনের পদ থেকে

মোহিত ডি রামের পদত্যাগ

জাস্ট দুনিয়া ডেস্ক: মোহিত ডি রামের পদত্যাগ ঘিরে নতুন প্রশ্ন উঠছে। নির্বাচন কমিশনের সুপ্রিম কোর্টের কাউন্সেলস প্যানেলের অন্যতম আইনজীবী এই মুহুর্তে নির্বাচন কমিশনের সঙ্গে তাঁর মূল্যবোধকে মেলাতে পারছেন না। আর সে কারণেই তাঁর পদ থেকে পদত্যাগ করার সিদ্ধান্ত নিয়েছেন।

২০১৩ সাল থেকে নির্বাচন কমিশনের পরামর্শ প্যানেলে থাকা মোহিত ডি রাম তাঁর পদত্যাগ পত্রে বলেছেন, “আমি আমার মূল্যবোধ নির্বাচন কমিশনের বর্তমান কার্যকারিতার সঙ্গে মেলাতে পারছি না এবং তাই আমি নিজেকে দায়িত্ব থেকে সরিয়ে নিয়েছি ভারতের সুপ্রিম কোর্টের সামনে।”

তিনি নির্বাচন কমিশনকে তাঁর কেরিয়ারের একটি মনে রাখার মতো অধ্যায় বলে ব্যাখ্যা করেছেন।

নির্বাচন কমিশন সুপ্রিম কোর্টে একটি মামলা করে যেখানে তাদের দাবি ছিল সংবাদমাধ্যমকে আদালতের পর্যবেক্ষণের রিপোর্টিং বন্ধ করতে হবে, আর তার পরই ডি রামের এই পদত্যাগ। নির্বাচন কমিশনের আপত্তি মাদ্রাজ হাইকোর্টের সাম্প্রতিক মন্তব্যে উঠে এসেছিল, যে গত দু’মাসে নির্বাচনী জনসভা বন্ধ না করার জন্য কমিশন কোভিড পরিস্থিতির জন্য এককভাবে দায়বদ্ধ  এবং তাঁদের বিরুদ্ধে “হত্যার মামলা করা উচিত”। এটা যদিও ফাইনাল নির্দেশ ছিল না।

নির্বাচন কমিশন এই বক্তব্যকে অস্বীকার করে এবং এই মন্তব্যকে ‘‘অসম্মানজনক মন্তব্য” বলে অভিহিত করে সুপ্রিম কোর্টের দ্বারস্থ হয়।

তার প্রেক্ষিতে সুপ্রিম কোর্ট বলে, যে সংবাদ মাধ্যমগুলিতে অভিযোগকারীদের জিজ্ঞাসাবাদ করা ও অভিযোগ করার চেয়ে সাংবিধানিক কর্তৃপক্ষ তা আরও ভাল করে করতে পারে।

অনুচ্ছেদ ১৯ শুধুমাত্র জনগণের বাকস্বাধীনতা ও মত প্রকাশের অধিকার দেয় না, গণমাধ্যমের কাছেও এই অধিকার রয়েছে। সুপ্রিম কোর্টের পক্ষে গণমাধ্যমকে দমন করা বিপরীত হবে বলে জানায় সুপ্রিম কোর্ট।

(প্রতিদিন নজর রাখুন জাস্ট দুনিয়ার খবরে)

(জাস্ট দুনিয়ার ফেসবুক পেজ লাইক করতে ক্লিক করুন)