৩৬০ আসনের বোইং ৭৭৭ বিমানে একাই মুম্বই থেকে দুবাই পাড়ি দিলেন ভবেশ জাভেরি

৩৬০ আসনের বোইং ৭৭৭

জাস্ট দুনিয়া ডেস্ক: ৩৬০ আসনের বোইং ৭৭৭ বিমানটির নাম লেখা থাকবে সর্ণাক্ষরে ১৯ মে ২০২১-এর তারিখে। ওই দিন এই বিমানটি মুম্বই থেকে দুবাই পাড়ি দিয়েছিল একজন যাত্রীকে নিয়ে। আর মুম্বই থেকে দুবাই যাওয়ার জন্য সেই যাত্রী পুরো বিমান ভাড়া করেছিলেন ১৮,০০০ টাকায়। সাধারণত তিনি বিজনেস ক্লাসেই যাতায়াত করেন। কিন্তু এবার ভেবেছিলেন, ফাঁকাই থাকবে বিমান তাই ইকনমি ক্লাসের টিকিট কেটেছিলেন। তার পর সবটাই ইতিহাস। কিন্তু বিমান বন্দরে গিয়ে পড়লেন বিপদে। তাঁকে ঢুকতে বাঁধা দেওয়া হল কারণ তাঁর টিকিটে কোনও তারিখ দেওয়া ছিল না। সঙ্গে সঙ্গেই তিনি ফোন করেন এমিরেটসের দফতরে আর তখনই জানতে পারেন বিমান নিয়ে বিমান কর্মীরা তাঁর জন্য অপেক্ষা করছেন। বিমান নম্বর ইকে৫০১।

৪০ বছরের ভবেশ জাভেরি গত ২০ বছর ধরে থাকেন দুবাইতে। এই পথে কম করে ২৪০ বার বিমান চরেছেন তিনি। তবেই এটিই ছিল তাঁর সেরা ফ্লাইট। তিনি বলেন, ‘‘আমাকে অনেক ট্র্যাভেল করতে হয় কিন্তু এটিই ছিল এখনো পর্যন্ত সেরা যাত্রা।’’ পুরো রাস্তাটাই তিনি সময় কাটালেন বিমান কর্মীদের সঙ্গে আড্ডা দিয়ে। বিশালাকার বোইং বিমান ঘুরেও দেখেন তিনি। তাঁর পছন্দের ও লাকি ১৮ নম্বরের সিটও তাঁকে দেওয়া হয়।

শুধু তাই নয়, পুরো বিমান যাত্রা তাঁর কাছে ছিল একদম অভিনব। যখন তিনি বিমানের ভিতরে প্রবেশ করেন তখন তাঁকে হাততালি দিয়ে স্বাগত জানানো হয়। শুধু তাই নয়, এতদিন যখন বিমানে উঠতেন তখন যে ঘোষণা হত তা পাবলিক অ্যানাউন্সমেন্ট হত মানে যাত্রীদের উদ্দেশে। কিন্তু এদিন ঘোষণা ছিল শুধুই তাঁর উদ্দেশে। বিমান চালক ঘোষণা করেন, ‘‘মিস্টার জাভেরি দয়া করে আপনার সিটবেল্ট বেঁধে নিন। মিস্টার জাভেরি আমরা অবতরণের জন্য প্রস্তুত, ইত্যাদি।’’ বিমান থেকে বেরিয়ে কনভেয়র বেল্টেও তিনি একাই দাঁড়িয়েছিলেন।

করোনাভাইরাসের দ্বিতীয় ঢেউ শুরু হওয়ার পর সংযুক্ত আরব আমিরশাহীতে যাতায়াতের সীমাবন্ধতা তৈরি করা হয়। বাইরে থেকে এই মুহূর্তে সে দেশে যেতে পারবেন শুধু সে দেশের নাগরিক, সে দেশের গোল্ডে ভিসা যাঁদের রয়েছে আর কূটনৈতিক মিশনের সদস্যরা। জাভিরর গোল্ডেন ভিসা থাকায় তিনি সেই সুযোগ পেয়েছেন।

ইন্ডিয়ান চার্টার বিমান সংস্থার এক ব্যক্তি জানিয়েছেন, মুম্বই থেকে দুবাই যেতে বোইং ৭৭৭-এর খরচ হয় ৭০ লাখ টাকা। সেই বিমানই যদি একা বুক করা হয় তার খরচ দ্বিগুন হয়ে যায় কারণ সেই বিমানকে খালি ফিরতে হয়। ভবেশ জাভেরির গোল্ডেন ভিসা ছিল এবং তিনি ১৮,০০০ টাকায় ইকনমি ক্লাসের টিকিট কেটেছিলেন।

তিনি জানিয়েছেন, গত জুনে তিনি দুবাই থেকে মুম্বই পৌঁছেছিলেন ন’জন যাত্রী সহযোগে ১৪ আসনের বিশেষ বিমানে। সেই বিপুল টাকা এবার আর খরচ করতে চাননি তিনি। তবে বিমান সংস্থা কেন এতবড় ঝুঁকি নিল। কারণ মুম্বই-দুবাই-এর মধ্যে একপাশের তেলের খরচ ৮ লাখ টাকা। আর সেই টাকা খরচ হল একজন ইকনমি ক্লাসের যাত্রীর জন্য। যখন দুবাই থেকে মুম্বই যায় বিমানটি এবং সেই বিমানকে ফিরতেই হয় নিজের জায়গায় কোনও যাত্রী না থাকলেও।

(প্রতিদিন নজর রাখুন জাস্ট দুনিয়ার খবরে)

(জাস্ট দুনিয়ার ফেসবুক পেজ লাইক করতে ক্লিক করুন)