দিল্লিতে লকডাউন মে শেষ পর্যন্ত, তার পর থেকে শুরু হবে আনলক

দিল্লিতে লকডাউন

জাস্ট দুনিয়া ডেস্ক: দিল্লিতে লকডাউন বাড়ানো হল আরও এক সপ্তাহ। গত একমাস ও তার বেশি সময় ধরে যে কড়া লকডাউনের সিদ্ধান্ত নিয়েছিল দিল্লি সরকার তার সুফল হাতে নাতে পেয়েছে রাজ্য। যেখানে প্রতিদিন কোভিড আক্রান্তের সংখ্যা, অক্সিজেনের অভাবে মৃত্যু বিদেশি সংবাদ মাধ্যমেও হেডলাইন  তৈরি করেছিল সেখানে আজ স্বস্তি রাজধানী শহরে। আক্রান্তের পরিমাণ নেমে এসেছে ২.৫ শতাংশে। যা সত্যিই প্রশংসার যোগ্য। সাময়িক পরিস্থিতি খুবই জটিল হয়ে গিয়েছিল দিল্লিতে। কিন্তু দেড়ি হলেও সঠিক পথেই হেঁটেছে অরবিন্দ কেজরিওয়াল।

এই লকডাউন চলবে ৩১ মে সকাল ৫টা পর্যন্ত। যদি পরিস্থিতি এরকমই থাকে তাহলে তার পর থেকে একটু একটু করে শুরু হবে আনলক পর্ব। একবারে সব খুলে যাবে এমনটা ভাবারও কোনও কারণ নেই। কারণ দেশ জুড়ে দ্বিতীয় ঢেউয়ের প্রকোপ এখনও তাজা। তার পর তৃতীয় ঢেউ আসার আশঙ্কার কথাও শুনিয়েছেন বিজ্ঞানীরা। সেই অবস্থায় পুরোপুরি সব খুলে গেলে আবার সেই ভয়ঙ্কর দিন ফিরে আসার সম্ভাবনা থাকবে। তাই কোনও ঝুঁকি নিতে নারাজ কেজরিওয়াল সরকার।

অরবিন্দ কেজরিওয়াল বলেন, ‘‘আমরা জানি না এই ঢেউ কতদিন থাকবে। কিন্তু গত একমাস দিল্লির মানুষ সাহায্য করেছে। দিল্লি এক পরিবার হয়ে ভাইরাসের বিরুদ্ধে লড়াই করেছে। এমনকী টখন এখানে অক্সিজেনের সমস্যা দেখা দিয়েছিল তখনও। আর এখন টিকার প্রচন্ড আকাল। তবে আমার বিশ্বাস দ্রুত এর সমাধান খুঁজে পাওয়া যাবে।’’

তিনি আরও বলেন, ‘‘এখন ঢেউ কিছুটা দুর্বল হয়েছে বলে মনে হচ্ছে। আমরা এখনও জয় পাইনি হয়তো আক্রমণের উপর নিয়ন্ত্রণ এসেছে। ২৪ ঘণ্টায় পজিটিভিটি রেট ২.৫ শতাংশের নিচে। একটা সময় আমরা রোজ ২৮,০০০ মানুষের পজিটিভ হওয়ার খবর পেতাম। তখন পজিটিভিটি রেট ছিল ৩৫ শতাংশ। এখন ২৪ ঘণ্টায় গড়ে ১৬০০ মানুষ আক্রান্ত হচ্ছে।’’

৩০ মার্চের পর এদিন সব থেকে কম আক্রান্ত ও মৃত্যু হয়েছে। আক্রান্ত হয়েছেন ১৬৪৯ জন, মৃত্যু হয়েছে ১৮৯ জনের। শনিবার দিল্লির পজিটিভিটি রেট ছিল ৩.৫৮ শতাংশ। ১ এপ্রিলের পর সেটিই ছিল সব থেকে কম। মুখ্যমন্ত্রী জানিয়েছেন, এই মুহূর্তে প্রশাসনের মূল লক্ষ্য সকলকে ভ্যাকসিন দেওয়া।

তিনি বলেন, ‘‘আমাদের কাছে সব ব্যবস্থা তৈরি রয়েছে যাতে তিন মাসের মধ্যে সকলেই ভ্যাকসিন পেয়ে যায়। কিন্তু আপাতত ভ্যাকসিনের আকাল রয়েছে। যে কোনও মূল্যে আমরা দিল্লির মানুষের জন্য ভ্যাকসিন কিনতে চাই যদি কেউ দেয়।’’ তিনি জানিয়ে দেন, কেন্দ্র সরকার বা বিদেশে যেখান থেকেই হোক তিনি ও তাঁর সরকার ভ্যাকসিন কিনতে প্রস্তুত।

দিল্লির পাশাপাশি তামিলনাড়ুতেও আরও এক সপ্তাহ বাড়ানো হয়েছে লকডাউনের সময়সীমা। উত্তরপ্রদেশেও বাড়ানো হয়েছে লকডাউনের সময়সীমা। চলবে ৩১ মে পর্যন্ত। একইভাবে হরিয়ানাও ৩১ মে পর্যন্ত বাড়ালো লকডাউনের সময়সীমা তবে বিশেষ কিছু ছাড় দেওয়া হচ্ছে।

(প্রতিদিন নজর রাখুন জাস্ট দুনিয়ার খবরে)

(জাস্ট দুনিয়ার ফেসবুক পেজ লাইক করতে ক্লিক করুন)