বিপিন রাওয়াত দেশের প্রথম ‘চিফ অব ডিফেন্স স্টাফ’, দায়িত্ব নেবেন ১ জানুয়ারি

বিপিন রাওয়াতবিপিন রাওয়াত

জাস্ট দুনিয়া ডেস্ক: বিপিন রাওয়াত, দেশের প্রথম ‘চিফ অব ডিফেন্স স্টাফ’ (সিডিএস) হলেন। এত দিন তিন বাহিনীর উপরে ছিলেন শুধুই রাষ্ট্রপতি। এ বার সেই স্থলসেনা, নৌসেনা এবং বায়ুসেনার তিন প্রধানের উপরে ‘চিফ অফ ডিফেন্স স্টাফ’ হিসেবে দেশের বর্তমান সেনাপ্রধান বিপিন রাওয়াত দায়িত্ব নেবেন। আগামী কাল ৩১ ডিসেম্বর সেনাপ্রধানের পদ থেকে অবসর নেবেন ৬২ বছর বয়সি বিপিন রাওয়াত । কয়েক দিন আগেই তিন বাহিনীর প্রধান হিসেবে ‘চিফ অব ডিফেন্স স্টাফ’ নামে নতুন পদ তৈরি করেছে কেন্দ্রীয় সরকার। ওই পদে ৬৫ বছর বয়স পর্যন্ত থাকা যাবে।

বিভিন্ন মহলে জল্পনা ছিলই। দেশের প্রথম সিডিএস হবেন বিপিন রাওয়াত। তাঁর অবসরের এক দিন আগেই কেন্দ্র এই ঘোষণা করল। প্রতিরক্ষা মন্ত্রকের অধীন সেনা বিষয়ক দফতরের প্রধান হচ্ছেন তিনি। সেনার তিন বাহিনীর কাজে সমন্বয়ের জন্য গত ২৪ ডিসেম্বর এই পদের ঘোষণা করে কেন্দ্র। তখন থেকেই জল্পনায় ছিল সেনাপ্রধানের নাম।


দেশের আরও খবর পড়তে ক্লিক করুন

সম্প্রতি সেনাপ্রধান বিপিন রাওয়াতের একটি বক্তব্য নিয়ে দেশজুড়ে অনেক বিতর্ক হয়। সেনাপ্রধানের ওই বক্তব্যে সরাসরি না বলা হলেও সিএএ-এনআরসির বিরুদ্ধে দেশজুড়ে আন্দোলনের দিকেই তিনি ইঙ্গিত করেছিলেন। তিনি বলেছিলেন, “কলেজ বিশ্ববিদ্যালয়ের পড়ুয়ারা অগ্নিসংযোগ ও হিংসা ছড়াচ্ছেন। এটা কখনও নেতৃত্ব হতে পারে না। যাঁরা মানুষকে ভুল পথে চালিত করেন, তাঁরা কখনও নেতা হতে পারেন না।”

এক জন সেনাপ্রধান হিসেবে তিনি রাজনৈতিক কোনও বিষয়ে মত প্রকাশ করতে পারেন কিনা তা নিয়ে বিতর্কের মধ্যেই বিপিন রাওয়াত হতে চলেছেন দেশের প্রথম ‘চিফ অফ ডিফেন্স স্টাফ’। ইতিমধ্যেই বিরোধীরা বলতে শুরু করেছেন যে, কেন্দ্রীয় সরকারের প্রতি আনুগত্য প্রকাশ করতেই আগাম এমন মন্তব্য করে রেখেছেন বিপিন রাওয়াত।

১৯৯৯-এর কার্গিল যুদ্ধে ভারতীয় স্থলসেনা বাহিনী, বায়ুসেনা ও নৌ সেনার পারদর্শিতা খতিয়ে দেখতে একটি কমিটি গঠিত হয়েছিল। সেই কমিটিই প্রথম তিন বাহিনীর উপদেষ্টার এই সুপারিশ করেছিল। এ বছর স্বাধীনতা দিবসের বক্তৃতায় প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী প্রথম এই পদের ঘোষণা করেন। তার পর থেকেই প্রতিরক্ষা মন্ত্রকে তৎপরতা শুরু হয়। অবশেষে ২৪ ডিসেম্বর এই পদাধিকারীর দায়িত্ব-কর্তব্য নিয়ে বিজ্ঞপ্তি জারি হয়। তাতে বলা হয়েছিল, সেনার যে কোনও বাহিনীর ‘ফোর স্টার’ ক্যাটেগরির অফিসারকে নিয়োগ করা হবে।

‘চিফ অফ ডিফেন্স স্টাফ’ পদ তৈরির প্রস্তাব অবশ্য নতুন নয়। দীর্ঘদিন ধরে প্রস্তাব থাকলেও মোদী সরকার তা কার্যকর করল। কারগিল যুদ্ধের পর পরই সেনাবাহিনীর গঠনে পরিবর্তন আনতে কে সুব্রহ্মণম কমিটি গঠন করে কেন্দ্র। সেই কমিটি সিডিএস পদ তৈরির প্রস্তাব দেয়৷ পরে ২০১৬ সালে একটি রিপোর্টও পেশ করে লেফটেন্যান্ট জেনারেল ডি বি শেখাটকর কমিটি৷ অবশেষে সেই প্রস্তাব কার্যকর হল। গত ১৫ অগস্ট স্বাধীনতা দিবসের বক্তব্যে ‘চিফ অফ ডিফেন্স স্টাফ’ পদটির কথা ঘোষণা করেছিলেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী। সেই ঘোষণা অনুযায়ী নতুন এই পদ তৈরি হল আর বিপিন রাওয়াত হলেন তার প্রথম প্রধান।

বিপিন শিমলার সেন্ট এডওয়ার্ড স্কুলে পড়াশোনা করেছেন বিপিন রাওয়াত। এর পর খড়কভাসলার ন্যাশনাল ডিফেন্স অ্যাকাডেমি এবং দেহরাদূনে ইন্ডিয়ান মিলিটারি অ্যাকাডেমির প্রাক্তনী বিপিন রাওয়াত গোর্খা রেজিমেন্টে সেনাবাহিনীতে যোগ দেন। ২০১৬ সালের ৩১ ডিসেম্বর সেনাপ্রধান হিসেবে দায়িত্ব নেন। তিন বছর কাজ করার পর আগামিকাল ৩১ ডিসেম্বর তাঁর অবসর নেওয়ার কথা ছিল তাঁর।


(জাস্ট দুনিয়ার ফেসবুক পেজ লাইক করতে ক্লিক করুন)