আফগানিস্তান পরিস্থিতি নিয়ে সবর্দল বৈঠকের ডাক দিল কেন্দ্র

আফগানিস্তান পরিস্থিতি

জাস্ট দুনিয়া ডেস্ক: আফগানিস্তান পরিস্থিতি ক্রমশ জটিল হচ্ছে। এখনও আফগানিস্তান তালিবানের দখলে চলে যাওয়ার প্রভাব ভারতের উপর কী হতে চলেছে তা নিয়ে জল্পনা চলছে। তার মধ্যেই সে দেশ থেকে ভারতীয়দের তড়িঘড়ি উদ্ধারের কাজও চলছে। প্রাথমিক কাজ আফগানিস্তান থেকে ভারতীয়দের সুস্থ শরীরে দেশে ফেরানো। আপাতত বায়ুসেনার বিমানই সে দেশে যেতে পারছে। আর তাতেই গত সোমবার থেকে উদ্ধার করা হচ্ছে ভারতীয়দের। এর মধ্যেই আফগানিস্তান পরিস্থিতি নিয়ে আলোচনা করতে সবর্দল বৈঠকের ডাক দিয়েছে কেন্দ্র সরকার। প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী বিদেশমন্ত্রী এস জয়শঙ্করকে দায়িত্ব দিয়েছেন যাতে সব দলের কাছে এই বার্তা পৌঁছে যায় এবং পুরো পরিস্থিতি সম্পর্কে তাঁরা অবগত হতে পারে।

আপাতত প্রতিদিন কাবুল থেকে দুটো বিমান ভারতে আসার অনুমতি দেওয়া হয়েছে। আর তাতেই ভারতীয়দের উদ্ধার করা হচ্ছে। এ ছাড়া সে দেশে আটকে থাকা হিন্দু ও শিখদের সাহায্য করার কথাও জানিয়েছে ভারত সরকার। বিদেশমন্ত্রী এস জয়শঙ্কর টুইট করে জানিয়েছেন, ‘‘আফগানিস্তানের পরিস্থিতির বিস্তারিত রাজনৈতিক দলগুলির নেতাদের জানানোর নিদের্শ দিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী। সংসদীয় বিষয়ক মন্ত্রী প্রহ্লাদ জোশী বাকিটা বিস্তারিত জানাবে।’’

সংসদীয় বিষয়ক মন্ত্রী প্রহ্লাদ জোশী এস জয়শঙ্করের টুইটের জবাবে লেখেন, ‘‘আফগানিস্তানের বর্তমান পরিস্থিতি নিয়ে বিদেশমন্ত্রী এস জয়শঙ্কর সংসদে বিভিন্ন দলের নেতাদের আগামী ২৬ অগস্ট বেলা ১১টায় অবগত করবেন। ওই বৈঠক হবে নয়াদিল্লির বিদেশ মন্ত্রকের মেন কমিটি রুমে। সকলকে এ বিষয়ে ইমেল মারফত আমন্ত্রণ জানানো হয়েছে। সংশ্লিষ্ট সকলকে ওই বৈঠকে থাকার জন্য অনুরোধ করা হচ্ছে।’’

বায়ুসেনার বিমান ছাড়াও আরও তিনটি বিমান তাজিকিস্তানের রাজধানী দুশানবে ও কাতারের দোহা থেকে দিল্লি পৌঁছেছে ভারতীয়দের নিয়ে। বায়ুসেনার বিমানে আফগানিস্তান থেকে এখানে পৌঁছেছিলেন অনেকে। যুদ্ধ বিধ্বস্ত আফগানিস্তান থেকে ভারতীয়দের দেশে ফেরাতে কোনওরকমভাবেই সময় নষ্ট করতে চাইছে না সরকার। বিদেশমন্ত্রকের তরফে জানানো হয়েছে, সরকারের প্রাথমিক লক্ষ্য ভারতীয়দের সুস্থ শরীরে দেশে ফেরানো। সঙ্গে এও জানিয়েছে যে সব থেকে ব চ্যালেঞ্জ কাবুল বিমান বন্দরের পরিস্থিতি।

১৭ অগস্ট ক্যাবিনেট কমিটির মিটিংয়ের প্রাথমিক বিষয়ই ছিল আফগানিস্তান থেকে ভারতীয়দের দেশে ফেরানো। গত সপ্তাহে কাবুল বিমান বন্দরে বিভিন্ন পরিস্থিতিতে কম করে ২০ জনের মৃত্যু হয়েছে। বিমান বন্দরে ক্রমশ ভিড় বাড়ছে দেশ ছাড়তে চেয়ে। আফগানরাও চাইছে দেশ ছাড়তে। সম্প্রতি কাবুল বিমান বন্দরে গুলিও চালিয়েছে তালিবানরা। তাতে মৃত্যুও হয়েছিল বেশ কয়েকজনের। এই পরিস্থিতিতে সেখান থেকে ভারতীয়দের উদ্ধার করা বা বিমানের ওঠা-নামা রীতিমতো কঠিন কাজ হয়ে দাঁড়িয়েছে বায়ুসেনার বিমানের।

প্রতিদিন নজর রাখুন জাস্ট দুনিয়ার খবরে

(জাস্ট দুনিয়ার ফেসবুক পেজ লাইক করতে ক্লিক করুন)