ইডির জেরার মুখে জ্যাকলিন ফার্নান্ডেজ, বিপাকে বলিউড সেলেবরা

ইডির জেরার মুখে জ্যাকলিন ফার্নান্ডেজ

জাস্ট দুনিয়া ডেস্ক: ইডির জেরার মুখে জ্যাকলিন ফার্নান্ডেজ এবার। রবিবার নার্কোটিক্সের হাতে গ্রেফতার হয়েছিলেন অভিনেতা আরমান কোহলি। আর সোমবার অভিনেত্রী জ্যাকলিন ফার্নান্ডেজকে পড়তে হল এনফোর্সমেন্ট ডাইরেক্টোরেটের জেরার মুখে। আর্থিক তছরুপেপ মামলায় এদিন তাঁকে দীর্ঘক্ষণ জেরা করে ইডি। জেরা করতে তাঁকে ডেকে পাঠানো হয় নয়া দিল্লিতে। সেখানে প্রায় ৫ ঘণ্টা ধরে চলে জেরা। তবে তিনি আর্থিক তছরুপের মামলায় অভিযুক্ত নন বরং তাঁকে সাক্ষী হিসেবেই এই জেরা করা হয়েছে বলে খবর। আর্থিক তছরুপ মামলার বড় মাথা সুখেশ চন্দ্রশেখর। তাঁর বিরুদ্ধেই মামলা জিজ্ঞাবাদ করছে ইডি আধিকারিকরা।

এই সুখেশ চন্দ্রশেখর কয়েক হাজার কোটি টাকার আর্থিক তছরুপের মামলার মূল অভিযুক্ত। আর সেই মামলার মূল সাক্ষী হিসেবে নাম উঠে আসে জ্যাকলিনের। সে কারণেই তাঁকে এদিন জিজ্ঞাসাবাদ করা হয় বলে জানানো হয়েছে ইডির তরফে। এই চন্দ্রশেখরের সঙ্গে কীভাবে জ্যাকলিনের যোগাযোগ তা এখনও পরিষ্কার হয়নি। এবং তিনি ছাড়াও আর কে কে রয়েছেন এই তালিকায় তাও স্পষ্ট নয়। ক্রমশ জানা যাবে যখন যখন জেরা করা হবে।

জ্যাকলিন ফার্নান্ডেজ আসকলে শ্রীলঙ্কার নাগরিক। ২০০৬ সালে মিস ইউনিভার্স শ্রীলঙ্কা হওয়ার পরই কাজের খোঁজে ভারতে পাড়ি দেন তিনি। মডেল হিসেবে ততদিনে ভাল নাম ডাকও হয়ে গিয়েছিল তাঁর। বিশ্ব সিনেমার জগতে বলিউড একটা বড় নাম। সকলেই চায় সেখানে এসে কাজ করতে। ব্যাতিক্রম নন তিনিও। ২০০৯-এ তাঁর বলিউড ছবিতে অভিষেক ‘আলাদিন’ দিয়ে। তার পর থেকে একের পর এক বড় পরিচালকদের সঙ্গে বলিউডের নামজাদা নায়কদের বিপরিতে কাজ করছেন। কুড়িয়েছেন প্রশংসাও। সলমন খান, অক্ষয় কুমার, রণবীর কাপুর, অর্জুন রামপাল, বরুন ধাওয়ানদের বিপরিতে সাফল্যের সঙ্গে কাজ করেছেন। সামনেই মুক্তি পেতে চলেছে তাঁর এক গুচ্ছ ছবি। তার মধ্যে রয়েছে ‘ভূত পুলিশ’, ‘অ্যাটাক’ , ‘রামসেতু’।

এদিকে মাদক মামলায় আরও দু’দিন হেফাজতে আরমান কোহলি। এদিন শুনানির পর আদালত এমনটাই রায় দিয়েছেন। আপাতত ১ সেপ্টেম্বর পর্যন্ত জেলেই কাটবে তাঁর। রবিবার সকালে তাঁকে এনসিবি গ্রেফতার করে মাদক কাণ্ডে জড়িত থাকার কারণে। তার আগে ১২ ঘণ্টা ধরে তাঁর জেরা চলে মুম্বইয়ের এনসিবি দফতরে। কিন্তু তাঁর জবাবে সন্তুষ্ট হতে পারেননি এড়সিবি অফিসাররা। তার পরই তাঁকে গ্রেফতার করা হয়। তাঁর কাছ থেকে উদ্ধার হয়েছে নিষিদ্ধ মাদকও। কী ভাবে তা তাঁর কাছে এল সেটাই জানতে চান এনসিবি আধিকারিকরা।

(প্রতিদিন নজর রাখুন জাস্ট দুনিয়ার খবরে)

(জাস্ট দুনিয়ার ফেসবুক পেজ লাইক করতে ক্লিক করুন)