ডেল্টা ভাইরাসে রাজ্য চতুর্থ স্থানে, চিন্তা বাড়াচ্ছে প্রশাসনের

আমেরিকায় ডেল্টার হানা

জাস্ট দুনিয়া ব্যুরো: ডেল্টা ভাইরাসে রাজ্য চতুর্থ স্থানে পৌঁছে গিয়েছে।  চোখ রাঙাচ্ছে ভাইরাস। যা ঘিরে নতুন করে চিন্তার ভাজ প্রশাসনের কপালে। তার সঙ্গে কেন্দ্রের ঘোষণায় উদ্বেগের পরিমান আরও বৃদ্ধি পেল শনিবার। কেন্দ্রের তরফে জানানো হয়েছে, যে ৩৫টি রাজ্য ও কেন্দ্রশাসিত অঞ্চলে ডেল্টা স্ট্রেন পাওয়া গিয়েছে তার মধ্যে উপরের দিকেই রয়েছে পশ্চিমবঙ্গ। দেশের মধ্যে যার স্থান চতুর্থ। এখনও কোভিডের দ্বিতীয় ঢেউয়ের প্রকোপ থেকে পুরোপুরি মুক্তি পায়নি রাজ্য তার মধ্যে এই ডেল্টা স্ট্রেন বাড়তে শুরু করেছে। আগেই সংক্রমণ যাতে না বাড়ে তার জন্য লোকাল ট্রেন না চালানোর সিদ্ধান্ত নিয়েছে সরকার।

কিন্তু কার্যত লকডাউনের অনেকটাই শিথিল করা হয়েছে। মানুষ রাস্তায় বেরচ্ছে বাজার যাচ্ছে। মল, রেস্টুরেন্ট, অফিসে যাচ্ছে। অতিরিক্ত আত্মবিশ্বাসী হয়ে মাস্ক পরা মানুষ প্রায় ছেড়ে দিতেই বসেছে। এই অবস্থায় ডেল্টার ভ্রুকূটি নতুন করে ভাবাচ্ছে রাজ্যকে। এই ডেল্টাকে সব থেকে বেশি শক্তিশালী প্রজাতি বলা হচ্ছে।

দেশের ৩৬টি রাজ্য ও কেন্দ্রশাসিত অঞ্চলের মধ্যে ৩৫টিতেই পাওয়া গিয়েছে এই ভাইরাস। রাজ্যে ২১ জুন পর্যন্ত যে নমুনা সংগ্রহ করা হয়েছে তার সংখ্যা ১,৫৫৩। যার মধ্যে ১,৩৯৭টিতেই পাওয়া গিয়েছে ডেল্টা স্ট্রেন। বিদেশ থেকে আসা ৪ জনের শরীরে এই স্ট্রেন পাওয়া গিয়েছে। বাকিরা এই রাজ্যেই ছিলেন। এর থেকে এটা স্পষ্ট বাইরে থেকে ডেল্টা প্রজাতির স্ট্রেন নিয়ে আসা হয়নি। এখানেই তা তৈরি হয়েছে। সেটা বেশি চিন্তার।

বিশেষজ্ঞদের মতে, ডেল্টা প্রজাতির স্ট্রেন অনেকবেশি সংক্রামক। শরীরের অভ্যন্তরের ক্ষতিও অনেকবেশি করে। কোভিড ফুসফুসের ক্ষতি করে, ডেল্টাও তাই। তবে কোভিডের থেকে বেশি ক্ষতি করছে ডেল্টা। রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা এতটাই কমে যায় যে সুস্থ হতে সময় লাগে। পশ্চিমবঙ্গের মতো দিল্লি, মহারাষ্ট্র, কেরল, অন্ধ্রপ্রদেশ, পঞ্জাব, হরিয়ানা ও তেলেঙ্গানাতেও ডেল্টা প্রজাতির স্ট্রেন ধরা পড়েছে। শীর্ষে দিল্লি। এবং দ্রুত গতিতে বাড়ছে সংক্রমণ।

মে মাসে যা ছিল ১০.৩১ শতাংশ জুনে তা দাঁড়িয়েছে ৫১ শতাংশ। এই ভাইরাসের উপর আদৌ কোভিশিল্ড আর কোভ্যাক্সিন কাজ করবে কিনা তার পরীক্ষা চলছে। এখনও ফল আসেনি। মনে করা হচ্ছে ৭-১০ দিনের মধ্যে এর ফল চলে আসবে। এই স্ট্রেনের সব থেকে বড় সমস্যা ঘন ঘন চরিত্র বদল।

(প্রতিদিন নজর রাখুন জাস্ট দুনিয়ার খবরে)

(জাস্ট দুনিয়ার ফেসবুক পেজ লাইক করতে ক্লিক করুন)