রাজ্যে মহামারী আইন চালু, শিক্ষা প্রতিষ্ঠান বন্ধ ১৫ এপ্রিল পর্যন্ত

রাজ্যে মহামারী আইন চালুনবান্নে সাংবাদিক বৈঠকে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়।

জাস্ট দুনিয়া ডেস্ক: রাজ্যে মহামারী আইন চালু করার কথা জানালেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। সোমবার নবান্নে বৈঠকের পর সাংবাদিক সম্মেলনে তিনি জানান, ‘দ্য এপিডেমিক ডিজিজেস অ্যাক্ট, ১৮৯৭’ বা মহামারি রোগ আইন প্রয়োগ করার সিদ্ধান্ত নিয়েছে রাজ্য সরকার।

মহামারি রোগ আইন রূপায়ণের পাশাপাশি এ দিন সতর্কতামূলক ব্যবস্থা হিসেবে স্কুল-কলেজ-বিশ্ববিদ্যালয়ে আপৎকালীন ছুটির মেয়াদ আগামী ১৫ এপ্রিল পর্যন্ত বাড়ানোর কথা জানিয়েছেন মুখ্যমন্ত্রী। শিক্ষক-শিক্ষিকারাও বাড়ি থেকে কাজ করবেন বলে জানিয়েছেন তিনি। বন্ধ থাকবে আইসিডিএস কেন্দ্রগুলো। তবে আইসিডিএস উপভোক্তাদের বাড়িতে খাবার পৌঁছে দেওয়া হবে।


এই সংক্রান্ত আরও খবর পড়তে ক্লিক করুন

মুখ্যমন্ত্রী এ দিন অনুরোধ করেছেন, যাতে সিনেমা হল, প্রেক্ষাগৃহ বন্ধ এবং রিয়ালিটি শো বন্ধ রাখা হয়। পাশাপাশি তিনি শপিং মল এবং বড় বড় বাজারে সতর্কতামূলক ব্যবস্থা নেওয়ার কথা বলেছেন। বড় কোনও জায়েত করতেও বারণ করেন তিনি।

করোনা মোকাবিলায় রাজ্যে ২০০ কোটি টাকার বিশেষ তহবিল ঘোষণা করেছেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। করোনা মোকাবিলার কাজে যে চিকিৎসক এবং স্বাস্থ্যকর্মীরা নিযুক্ত হবেন, তাঁদের জন্য ১০ লক্ষ টাকার স্বাস্থ্যবিমার কথা এ দিন ঘোষণা করেছেন মুখ্যমন্ত্রী।

করোনা সংক্রমণের সঙ্গে সোয়াইন ফ্লু এবং ডেঙ্গি মোকাবিলার ব্যবস্থার কথাও এ দিন বলেছেন মুখ্যমন্ত্রী। মতুয়া মেলার পাশাপাশি অন্যান্য মেলাও না করার পরামর্শ দিয়েছেন তিনি।

মহামারী আইন চালু করে মমতা এ দিন বলেন, ‘‘ঝুঁকি নেওয়ার আর জায়গা নেই। এপিডেমিক ডিজিজেস অ্যাক্ট এ রাজ্যে কার্যকর করছি। যাতে কেউ পরীক্ষার ভয়ে পালিয়ে যেতে না পারে। আতঙ্কিত হওয়ার কোনও কারণ নেই। এটার অপপ্রয়োগ হবে না।’’


(জাস্ট দুনিয়ার ফেসবুক পেজ লাইক করতে ক্লিক করুন)