শনিবারের লকডাউন, কড়া রাজ্য প্রশাসন, গোটা দিন জুড়েই নিস্তব্ধতার বারবেলা

শনিবারের লকডাউন

জাস্ট দুনিয়া ব্যুরো: শনিবারের লকডাউন রাজ্য প্রশাসনের কড়া নজরদারিতেই চলল। রাজ্য জুড়ে নিস্তব্ধতার বারবেলা— শুনশান রাস্তাঘাট, মানুষজন নেই কোথাও, তার মধ্যেই যাঁরা জরুরি প্রয়োজন ছাড়া বেরিয়েছিলেন, পুলিশ তাঁদের হয় আটক করছে, নয় গ্রেফতার, নয় তো বাড়ি পাঠিয়ে দিয়েছে। গত বৃহস্পতিবারও লকডাউনের দিন একই ছবি ধরা পড়েছিল রাজ্য জুড়ে।

কিন্তু বৃহস্পতি আর শনির মাঝের শুক্রবার কিন্তু রাজ্য জুড়ে চেনা ছবিটাই দেখা গিয়েছিল। বাজারঘাটে মানুষের উপচে পড়া ভিড়। শিকেয় উঠেছিল দূরত্ববিধি। আগামিকাল রবিবারও সেই আশঙ্কাই করছে প্রশাসন থেকে স্বাস্থ্য দফতরের কর্তারা।


করোনাভাইরাস সংক্রান্ত সব খবর জানতে এখানে ক্লিক করুন

আজ পুলিশের কঠোর নজরদারিতেই চলেছে লকডাউন। নিয়ম না মানলে প্রশাসন রীতিমতো কণা ব্যবস্থা নিয়েছে। জরুরি প্রয়োজন ছাড়া যাঁরা বাইরে বেরিয়েছেন, তাঁদের আটক করা হয়েছে। বাজেয়াপ্ত করা হয়েছে গাড়ি-বাইকও।

এ দিন কলকাতার বিভিন্ন এলাকায় চলেছে নাকা তল্লাশি। দক্ষিণ, মধ্য এবং উত্তর কলকাতার সব এলাকাতেই পুলিশ প্রচণ্ড কড়া ভূমিকা নিয়েছে। ড্রোনের সাহায্যেও চলেছে নজরদারি। শুধু রাজপথেই নয়, শহরের অলিগলিতে ঢুকে পুলিশকে টহল দিতে দেখা গিয়েছে।

করোনা মোকাবিলায় আপাতত সপ্তাহে দু’দিন করে লকডাউনের নির্দেশ জারি করেছে নবান্ন। আগামী সপ্তাহে বুধবার ফের লকডাউন। অন্য যে দিন লকডাউন হবে, আগামী সোমবার তা জানাবে নবান্ন।

বৃহস্পতি আর শনির মাঝের শুক্রবার কিন্তু রাজ্য জুড়ে চেনা ছবিটাই দেখা গিয়েছিল। বাজারঘাটে মানুষের উপচে পড়া ভিড়। শিকেয় উঠেছিল দূরত্ববিধি। আগামিকাল রবিবারও সেই আশঙ্কাই করছে প্রশাসন থেকে স্বাস্থ্য দফতরের কর্তারা।

উত্তর ২৪ পরগনার মধ্যমগ্রামে নাকা তল্লাশি চলে এ দিন। শনিবারের লকডাউন-এ যশোহর রোডের উপর পুলিশ টহল দেয়। রাস্তায় বেরনো সব গাড়িকেই আটকে জিজ্ঞাসাবাদ করা হয়েছে। বীরভূমেও একই ছবি ধরা পড়েছে। বোলপুরেও চলছে পুলিশি টহল। দুর্গাপুরেও রাস্তাঘাট শুনশান নজরে এসেছে। দক্ষিণ ২৪ পরগনার সোনারপুর, মথুরাপুরেও পুলিশি কড়াকড়ির ছবি দেখা গিয়েছে। মুর্শিদাবাদের বহরমপুর-সহ বিভিন্ন জায়গায় দেখা গিয়েছে পুলিশি টহল। মালদহের ইংরেজবাজারেও একই ছবি।  বাঁকুড়া থেকে হুগলি, হাওড়া থেকে পূর্ব বা পশ্চিম মেদিনীপুর— সর্বত্রই দোকানপাট বন্ধ করে দেয় পুলিশ। রাস্তায় বেরলে জিজ্ঞাসাবাদের পাশাপাশি আটকও করা হয়েছে। কোথাও কোথাও নিয়মভঙ্গকারীদের গ্রেফতারও করেছে পুলিশ।


(জাস্ট দুনিয়ার ফেসবুক পেজ লাইক করতে ক্লিক করুন)