বিধায়ক হিসেবে শপথ মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের, গড়হাজির বিজেপি

বিধায়ক হিসেবে শপথ মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের

জাস্ট দুনিয়া ব্যুরো: বিধায়ক হিসেবে শপথ মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের হয়ে গেল বৃহস্পতিবার। রাজ্যপাল জগদীপ ধনখড়ের উপস্থিতিতে শপথ বাক্য পাঠ করলেন মুখ্যমন্ত্রী। তিনিই শপথবাক্য পাঠ করালেন নব্য নির্বাচিত তিন বিধায়ককে। তাঁর সঙ্গে শপথ নিলেন জঙ্গিপুর ও সামশেরগঞ্জের সদ্য নির্বাচিত দুই বিধায়ক আমিরুল ইসলাম ও জাকির হোসেনও। এদিনের অনুষ্ঠানে সব সাংসদদের আহ্বান জানানো হলেও বিজেপির কোনও বিধায়ককেই সেখানে দেখা যায়নি। ভবানীপুরে উপনির্বাচনে রেকর্ড ভোটে জিতে বিধায়ক পদে শপথ নিলেন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। বেলা পৌনে দুটো নাগাদ বিধানসভায় পৌঁছন মুখ্যমন্ত্রী। মমতার শপথবাক্য পাঠে উপস্থিত ছিলেন সুব্রত বক্সি, মুকুল রায়, পার্থ চট্টোপাধ্যায়সহ তৃণমূলের বিশিষ্টরা।

যদিও নিয়ম অনুযায়ী বিধায়কদের বিধানসভায় শপথবাক্য পাঠ করান বিধানসভার অধ্যক্ষ। কিন্তু রাজ্যপাল স্বয়ং চিঠি দিয়ে জানিয়েছিলেন, তিনি মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়কে শপথবাক্য পাঠ করাতে চান। যে কারণে বিধানসভায় গিয়ে তিনি এদিন শপথবাক্য পাঠ করান। যদিও রাজ্য সরকারের সঙ্গে তাঁর টানাপড়েন লেগেই থাকে প্রতিমুহূর্তে। আক্রমণ, পাল্টা আক্রমণে সরগরম থাকে রাজ্যসরকার-রাজ্যপাল সম্পর্ক। তার মধ্যেই তাঁর এমন ইচ্ছেকে স্বীকৃতি দিল বিধানসভা।

শপথবাক্য পাঠ শেষে তাঁকে মুখ্যমন্ত্রীর সঙ্গে কথা বলতে দেখা যায়। মনে করা হচ্ছে বিভিন্ন বিষয় নিয়ে দু’জনের মধ্যে কথা হয়েছে। স্পিকারের ঘরেও বেশ খানিকক্ষণ কাটান তাঁরা। বিধানসভা ছাড়ার সময় রাজ্যপালকে গেট পর্যন্ত পৌঁছে দেন মুখ্যমন্ত্রী এবং তৃণমূলের নেতারা। ছিলেন অধ্যক্ষও। বেরিয়েও গাড়িতে ওঠার আগে রাজ্যপালকে দেখা যায় মুখ্যমন্ত্রীকে কিছু বলতে। এর পর ধনখড়কে বিদায় জানিয়ে ভিতরে চলে যান মমতা।

প্রতিদিন নজর রাখুন জাস্ট দুনিয়ার খবরে

(জাস্ট দুনিয়ার ফেসবুক পেজ লাইক করতে ক্লিক করুন)