২৪ ঘণ্টায় সর্বোচ্চ মৃত্যু রাজ্যে, নতুন ৫৩ জনকে ধরে মোট মৃত সতেরোশো ছাড়াল

২৪ ঘণ্টায় সর্বোচ্চ মৃত্যু রাজ্যে

জাস্ট দুনিয়া ব্যুরো: ২৪ ঘণ্টায় সর্বোচ্চ মৃত্যু রাজ্যে, মারা গেলেন ৫৩ জন! মতুন করে আক্রান্ত হয়েছেন ২ হাজার ৭১৬ জন। এই সংখ্যাও এখনও পর্যন্ত সর্বোচ্চ। রাজ্যে মোট আক্রান্তের সংখ্যা ৭৮ হাজার ২৩২। সব মিলিয়ে এখনও পর্যন্ত রাজ্যে মোট মৃত্যুর সংখ্যা ১ হাজার ৭৩১। সোমবার প্রকাশিত স্বাস্থ্য দফতরের বুলেটিনে তেমনটাই জানানো হয়েছে।

গত ২৪ ঘণ্টাতে যে ৫৩ জন মারা গিয়েছেন, তাঁদের মধ্যে কলকাতার ২১ জন বাসিন্দা রয়েছেন। উত্তর ২৪ পরগনায় ২১, হাওড়ায় ৩, দক্ষিণ ২৪ পরগনায় ৩, হুগলিতে ১, আলিপুর দুয়ারে ১, উত্তর দিনাজপুরে ১, দক্ষিণ দিনাজপুরে ১ এবং জলপাইগুড়িতে ১ জন করোনা আক্রান্ত মারা গিয়েছেন। সংক্রমণ বেড়েই চলেছে রাজ্যে, তাই প্রশাসন অত্যন্ত কড়া ভাবে বিভিন্ন জায়গায় ফের লকডাউন কার্যকর করেছে। মঙ্গলবারই মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় জানিয়েছিলেন, রাজ্যে আগামী ৩১ অগস্ট পর্যন্ত লকডাউন কার্যকর থাকবে। সব মিলিয়ে ৭ দিন সম্পূর্ণ লকডাউনও হবে চলতি মাসে।


করোনাভাইরাস সংক্রান্ত সব খবর জানতে এখানে ক্লিক করুন

২৪ ঘণ্টায় সর্বোচ্চ মৃত্যু রাজ্যে, তবে সুস্থতার হার একটু হলেও বেড়েছে। এ দিনের বুলেটিনে সুস্থতার হার দেখানো হয়েছে— ৭০.০৭ শতাংশ। গত কয়েক দিনে এই হার বেশ খানিকটা কমে গিয়েছিল। এখনও পর্যন্ত সুস্থ হয়ে হাসপাতাল থেকে ছাড়া পেয়েছেন ৫৪ হাজার ৮১৮ জন। তার মধ্যে গত ২৪ ঘন্টাতেই ছাড়া পেয়েছেন ২ হাজার ৮৮ জন। কলকাতাতেই গত ২৪ ঘণ্টায় হাসপাতাল থেকে ছাড়া পেয়েছেন ৫৩১ জন।

সক্রিয় আক্রান্তের সংখ্যাও প্রতি দিন বাড়ছে রাজ্যে। এখনও পর্যন্ত সুস্থ হয়ে হাসপাতাল থেকে প্রায় সাড়ে ৫৪ হাজার মানুষ ছাড়া পেলেও এই মুহূর্তে সক্রিয় আক্রান্তের সংখ্যা ২১ হাজার ৬৮৩। তার মধ্যে কলকাতারই রয়েছেন ৬ হাজার ৮০১ জন। স্বাস্থ্য দফতরের বুলেটিন অনুযায়ী, রাজ্যে এখনও পর্যন্ত কোভিড টেস্ট হয়েছে মোট ৯ লক্ষ ৫৬ হাজার ৬৫৯টি। এর মধ্যে গত ২৪ ঘণ্টায় ২২ হাজার ১২২টি টেস্ট হয়েছে। এ রাজ্যে ৫৮২টি সরকারি কোয়রান্টিন কেন্দ্র রয়েছে। সরকারি কোয়রান্টিন কেন্দ্র থেকে এখনও পর্যন্ত মোট ১ লাখ ৫ হাজার ৫৮৬ জনকে ছাড়া হয়েছে। পাশাপাশি, ওই কেন্দ্রগুলিতে এখনও ৩ হাজার ৭৫ জন রয়েছেন বলে জানিয়েছে স্বাস্থ্য দফতর।


(জাস্ট দুনিয়ার ফেসবুক পেজ লাইক করতে ক্লিক করুন)