রাজ্যে আরও ৪ কেন্দ্রে উপনির্বাচন, ঘোষণা করল নির্বাচন কমিশন

রাজ্যে আরও ৪ কেন্দ্রে উপনির্বাচন

জাস্ট দুনিয়া ডেস্ক: রাজ্যে আরও ৪ কেন্দ্রে উপনির্বাচন ঘোষণা করল নির্বাচন কমিশন। মঙ্গলবার কমিশন ঘোষণা করেছে, দিনহাটা, শান্তিপুর, খড়দহ ও গোসাবা কেন্দ্রে উপনির্বাচন হবে আগামী ৩০ অক্টোবর। ভোট-গণনা ২ নভেম্বর।

আগামী বৃহস্পতিবার অর্থাৎ ৩০ সেপ্টেম্বর ভবানীপুর-সহ তিন কেন্দ্রে ভোট। তার মধ্যে ভবানীপুরে উপনির্বাচন আর বাকি দুই কেন্দ্র জঙ্গিপুর এবং শমসেরগঞ্জে নির্বাচন। তার ঠিক এক মাসের মাথায় উপনির্বাচন হবে রাজ্যের আরও চারটি বিধানসভা কেন্দ্রে। সেই চার বিধানসভার মধ্যে দু’টিতে অর্থাৎ খড়দহ ও গোসাবা কেন্দ্রে বিধায়ক মৃত্যুর কারণে উপনির্বাচন। আর বাকি দুই কেন্দ্র শান্তিপুর এবং দিনহাটার বিধায়ক জেতার পর ইস্তফা দিয়েছেন। তাই সেখানেও উপনির্বাচন হবে। মোট চারটি আসনে এ বার উপনির্বাচন।

এ বারের বিধানসভা নির্বাচনে উত্তর ২৪ পরগনার খড়দহ কেন্দ্রে জিতেছিলেন তৃণমূলের কাজল সিংহ। কিন্তু ভোটের ফল প্রকাশের আগেই কাজলের মৃত্যু হয়। দক্ষিণ ২৪ পরগনার গোসাবার তৃণমূল বিধায়ক জয়ন্ত নস্কর যদিও ভোটের ফল প্রকাশের পরেই মারা যান। এই দুই কেন্দ্রে বিধায়ক পদ মৃত্যুর কারণে ফাঁকা থাকায় ফের নির্বাচন হবে। অন্য দিকে, শান্তিপুর বিধানসভা কেন্দ্রে এ বারের নির্বাচনে জিতেছিলেন বিজেপির জগন্নাথ সরকার। তিনি রানাঘাট লোকসভার সাংসদও বটে। ফলে বিধানসভায় জেতার পর তিনি সাংসদ পদে ইস্তফা না দিয়ে বিধায়ক পদই ছেড়ে দেন। একই রকম ভাবে কোচবিহারের দিনহাটার বিধায়ক পদ থেকে ইস্তফা দেন জয়ী বিজেপি প্রার্থী নিশীথ প্রামাণিক। তিনি কোচবিহারের সাংসদ পদ ধরে রাখতে চেয়েই বিধায়ক পদে ইস্তফা দেন। বর্তমা‌নে নিশীথ কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রীও বটে।

নির্বাচন কমিশন এ দিন রাজ্যে আরও ৪ কেন্দ্রে উপনির্বাচন ঘোষণা করার পর বিরোধীরা রীতিমতো প্রশ্ন তুলেছে। তাদের দাবি, দুর্গা ও কালীপুজোর মধ্যবর্তী সময়ে উৎসবের মরসুমে এমন ভোটের দিন ক্ষণ ঠিক করা অনুচিত। পুজোর মধ্যে ভোটের প্রচার কী ভাবে চলবে, তা নিয়েও প্রশ্ন উঠেছে। তৃণমূল যদিও উপনির্বাচনের এই ঘোষণাকে স্বাগত জানিয়েছে। কমিশন উপনির্বাচন ঘোষণা করার পরেই ভোটের প্রস্তুতি শুরু করে দিয়েছে মুখ্য নির্বাচনী আধিকারিক (সিইও)-এর দফতর। সংশ্লিষ্ট জেলাগুলির প্রশাসনকে নিয়ে এ দিনই বৈঠক হয়েছে সিইও দফতরে। সূত্রের দাবি, কোভিড বিধি এবং আইনশৃঙ্খলা ছিল বৈঠকের অন্যতম বিষয়।কমিশনের তরফে জেলা আধিকারিকদের বলা হয়েছে, কেন্দ্র এবং রাজ্যের কোভিড-বিধি মেনেই প্রস্তুতি রাখতে হবে। প্রচার এবং নির্বাচনী ক্ষেত্রে বিধি লঙ্ঘন করা চলবে না।


প্রতিদিন নজর রাখুন জাস্ট দুনিয়ার খবরে

(জাস্ট দুনিয়ার ফেসবুক পেজ লাইক করতে ক্লিক করুন)