ভোট পরবর্তী হিংসা মামলা, সিবিআই তদন্তের নির্দেশ দিল হাইকোর্ট

ভোট পরবর্তী হিংসা মামলা

জাস্ট দুনিয়া ডেস্ক: ভোট পরবর্তী হিংসা মামলা প্রসঙ্গে জাতীয় মানবাধিকার কমিশনকে আরও গুরুত্ব দিল কলকাতা হাইকোর্ট। তাদের তদন্তে নিরপেক্ষতা বজায় রাখা হয়েছে বলেই বৃহস্পতিবার নিজেদের পর্যবেক্ষণে জানিয়েছেন বিচারপতিরা। ভোট পরবর্তী হিংসা মামলায় জাতীয় মানবাধিকার কমিশন যে সব সুপারিশ করেছিল, তা নিয়ে আগেই রাজনৈতিক তরজা শুরু হয়েছিল। রাজ্যের শাসক দল তৃণমূল জাতীয় মানবাধিকার কমিশনের তদন্তকে পক্ষপাতদুষ্ট বলে অভিযোগ করে। কিন্তু কমিশনের সেই সব সুপারিশ মেনে বৃহস্পতিবার ফের তদন্তের নির্দেশ দিল কলকাতা হাইকোর্ট।

রাজ্যের বিভিন্ন জায়গায় গিয়ে ভোট পরবর্তী হিংসা নিয়ে তদন্ত করে জাতীয় মানবাধিকার কমিশন। সে সব তথ্য জড় করে একটি রিপোর্টও তৈরি করে তারা। কলকাতা হাইকোর্টের কাছে জমা দেওয়া সেই রিপোর্টে খুন ও ধর্ষণের ঘটনার তথ্যও ছিল। এই সব ঘটনা নিয়ে কমিশন সিবিআই তদন্তের সুপারিশ করে। রাজ্যের বিভিন্ন জায়গায় বাড়িঘর ভাঙচুর, আগুন লাগানো এবং মারধরের ঘটনায় বিশেষ তদন্তকারী দল গঠনের কথাও তাদের রিপোর্টে উল্লেখ করে কমিশন। এ দিন আদালতের রায় কার্যত কমিশনের সেই সুপারিশকেই মান্যতা দিল।

এ দিন তিন আইপিএস অফিসার সুমনবালা সাহু, সৌমেন সেন এবং রণবীর কুমারকে নিয়ে একটি বিশেষ তদন্তকারী দল (সিট) গঠন করেছে হাইকোর্ট। সুপ্রিম কোর্টের অবসরপ্রাপ্ত বিচারপতির নজরদারিতে হবে এই তদন্ত। ছ’সপ্তাহের মধ্যে সিবিআই ও সিট দু’টি তদন্তের রিপোর্টই আদালতে জমা দেওয়ার নির্দেশ দেওয়া হয়েছে। আদালত ওই তদন্তকারী দলকে বিশেষ ক্ষমতা দিয়েছে। নির্দেশে বলা হয়েছে, আদালতের অনুমতি ছাড়া সিটের তদন্তকারী অফিসারদের বিরুদ্ধে কোনও ব্যবস্থা নিতে পারবে না রাজ্য। অর্থাৎ তদন্ত চলাকালীন ওই অফিসারদের বদলি বা অন্য কোনও পদে বদলি করা যাবে না। এমনকি এই তদন্ত চলাকালীন অন্য সব কাজ থেকে তাঁদের অব্যাহতি দেওয়ার কথাও বলা হয়েছে। নির্দেশে স্পষ্ট উল্লেখ করা হয়েছে, তদন্তের স্বার্থে সিবিআই ও সিটকে যথাযথ সাহায্য করতে হবে রাজ্যকে।

জাতীয় মানবাধিকার কমিশন তাদের রিপোর্টে রাজ্যের মন্ত্রী জ্যোতিপ্রিয় মল্লিক এবং নৈহাটির বিধায়ক পার্থ ভৌমিককে কুখ্যাত দুষ্কৃতী বলে উল্লেখ করে। আদালত অবশ্য তাঁদের বিরুদ্ধে কোনও ব্যবস্থা নেওয়ার কথা জানায়নি এ দিন। তবে এই মামলায় জুড়তে চেয়ে জ্যোতিপ্রিয় এবং পার্থ যে আবেদন করেছিলেন তা খারিজ করে দিয়েছেন বিচারপতিরা। তদন্তের পর এই মামলার পরবর্তী শুনানি হবে অন্য এক ডিভিশন বেঞ্চে।

প্রতিদিন নজর রাখুন জাস্ট দুনিয়ার খবরে

(জাস্ট দুনিয়ার ফেসবুক পেজ লাইক করতে ক্লিক করুন)