হোয়াটস্‌অ্যাপেও এ বার বায়োমেট্রিক অথেন্টিকেশন, খুলতে হবে আঙুলস্পর্শে বা মুখ চিনিয়ে

হোয়াটস্‌অ্যাপেও এ বার বায়োমেট্রিক অথেন্টিকেশনহোয়াটস্‌অ্যাপ

জাস্ট দুনিয়া ডেস্ক: হোয়াটস্‌অ্যাপেও এ বার বায়োমেট্রিক অথেন্টিকেশন, তবে আপাতত এই ব্যবস্থা কেবল আইফোনের জন্য। ফোন খোলার পরে হোয়াট্‌সঅ্যাপ ব্যবহার করতে চাই আঙুলস্পর্শ অর্থাৎ টাচ আইডি। একই সঙ্গে মুখ চিনিয়ে অর্থাৎ ফেস রিকগনিশন করিয়ে ঢোকা যাবে হোয়াটস্‌অ্যাপে।

অতিরিক্ত নিরাপত্তার জন্য গত বছরের অক্টোবরেই হোয়াটস্‌অ্যাপ কর্তৃপক্ষ বায়োমেট্রিক অথেন্টিকেশনের কথা বলেছি‌লেন। প্রাথমিক ভাবে সেই নিরাপত্তা দেওয়া হল আইফোনে। এর পর অন্যান্য ফোনেও হোয়াটস্‌অ্যাপের এই নিরাপত্তা মিলবে বলে জানা গিয়েছে।

আইফোন কর্তৃপক্ষ জানিয়েছেন, তাঁদের আইফোন ৫এস থেকে শুরু করে উচ্চতর সব ভার্সনের মডেলেই ওই প্রযুক্তি কাজ করবে। আইওএস ৮ ভার্সন যাঁদের রয়েছে তাঁরাই ওই সুরক্ষা পাবেন।

কী ভাবে আপনার ফোনে ফেস রিকগনিশন বা টাচ আইডি সুরক্ষা অ্যাক্টিভেট করবেন? প্রথমে আপনার আইফোনের সেটিংস-এ যেতে হবে। সেখান থেকে অ্যাকাউন্ট। তার পর স্ক্রিন লক। এখানেই দেখা যাবে একটি অপশন। রিকয়্যার টাচ আইডি এবং/অথবা রিকয়্যার ফেস আইডি। এই অপশনটি সবুজ অর্থাৎ ইয়েস মোডে থাকলেই কাজ করতে শুরু করবে বায়োমেট্রিক অথেন্টিকেশন।

হোয়াটসঅ্যাপ এ বার মুখ ঢাকবে বিজ্ঞাপনে, দেখা যাবে স্টেটাসে

এর পর আপনি ফোন আনলক করে ফেস আইডি বা টাচ আইডি— দুটোর যে কোনও একটি ব্যবহার করেই ঢুকতে পারবেন হোয়াটস্‌অ্যাপে। অন্যথায় হোয়াটস্‌অ্যাপ লক হয়ে থাকবে।

হোয়াটস্‌অ্যাপের তরফে জানানো হয়েছে, দু’জনের মধ্যে কথোপকথন এবং বার্তার গোপনতা বজায় রাখতে আমরা সদা সচেষ্ট। কারও অজান্তে কেউ যাতে তাঁর সেই বার্তা পড়ে ফেলতে না পারে সে জন্যেই টাচ আইডি ও ফেস আইডি ফিচার দু’টি যুক্ত করা হল।

ফেস আইডি বা টাচ আইডি অ্যাক্টিভেট করার পর সেটি আপনি কত ক্ষণ পর অথেন্টিকেশন করতে চাইছেন সেই অপশনও আছে। হয় হোয়াটস্‌অ্যাপ খোলার সময়, অথব খোলার ১, ১৫ বা ৬০ মিনিটের মাথায় ওই অথেন্টিকেশন করতে হবে। তবে লক অবস্থায় নোটিফিকেশন থেকে হোয়াটস্‌অ্যাপের জবাব দেওয়া যাবে। এবং যে কোনও সময় হোয়াটস্‌অ্যাপে আসা অডিও এবং ভিডিও কল ধরা যাবে।

  • আপনার আইফোনের সেটিংস-এ যেতে হবে।
  • সেখান থেকে অ্যাকাউন্ট।
  • তার পর স্ক্রিন লক।
  • এখানেই দেখা যাবে একটি অপশন। রিকয়্যার টাচ আইডি এবং/অথবা রিকয়্যার ফেস আইডি।
  • এই অপশনটি সবুজ অর্থাৎ ইয়েস মোডে থাকলেই কাজ করতে শুরু করবে বায়োমেট্রিক অথেন্টিকেশন।
  • এর পর আপনি ফোন আনলক করে ফেস আইডি বা টাচ আইডি— দুটোর যে কোনও একটি ব্যবহার করেই ঢুকতে পারবেন হোয়াটস্‌অ্যাপে।

(জাস্ট দুনিয়া ফেসবুক পেজ দেখতে ক্লিক করুন)

Be the first to comment on "হোয়াটস্‌অ্যাপেও এ বার বায়োমেট্রিক অথেন্টিকেশন, খুলতে হবে আঙুলস্পর্শে বা মুখ চিনিয়ে"

Leave a comment

Your email address will not be published.


*