নীতীশ কুমার এবং সুশীল মোদীদের কটাক্ষ করে টুইট গিরিরাজের, আসরে অমিত শাহ

নীতীশ কুমার কি ফের লালুর সঙ্গেনীতীশ কুমার এবং অন্যান্যরা ইফতার পার্টিতে। এই দৃশ্য দেখেই কটাক্ষ করেছেন গিরিরাজ...

জাস্ট দুনিয়া ডেস্ক: নীতীশ কুমার কি ফের লালুর সঙ্গে হাত মেলাবেন? প্রশ্নটা ফের প্রাসঙ্গিক হয়ে উঠেছে জাতীয় রাজনীতিতে।

ভোট মেটার পর থেকেই বিজেপির সঙ্গে নীতীশের সংযুক্ত জনতা দল (জেডিইউ)-এর সম্পর্কে টানাপড়েন চলছিল। এ বার নীতীশকে ফের মহাজোটে শামিল হওয়ার ডাক দিলেন আরজেডি সহ-সভাপতি রঘুবংশপ্রসাদ সিংহ। তবে জেডিইউ শিবির থেকে সাড়া মেলেনি।

সোমবার নিজের বাড়িতে ইফতার পার্টির আয়োজন করেন বিহারের প্রাক্তন মুখ্যমন্ত্রী জিতনরাম। সেখানে উপস্থিত ছিলেন নীতীশ। আর সেখানেই তাঁকে ওই প্রস্তাব দেন রঘুবংশপ্রসাদ। তবে ওই ইপতার পার্টি নিয়ে ইতিমধ্যেই এক বিতর্ক তৈরি হয়েছে। কারণ, মঙ্গলবার সকালে কেন্দ্রীয় পশুপালন মন্ত্রী গিরিরাজ সিংহ এক টুইটে এনডিএ-র জোট শরিকদের কটাক্ষ করেন। তাঁর নিশানায় নিজের দলের নেতা তথা উপ-মুখ্যমন্ত্রী সুশীল মোদীও।

ওই দিনের এলজেপির ইফতার পার্টিতে নীতীশ কুমার ও সুশীল মোদী, দু’জনেই ছিলেন। ছিলেন জোটসঙ্গী রামবিলাস পাসোয়ান ও তাঁর ছেলে চিরাগ। তাঁদের সকলের পরনে সাদা কুর্তা, পাজামা, মাথায় টুপি। ওই নেতাদের হাসিমুখে তোলা ছবিও সোশ্যাল মিডিয়ায় ছড়ায়। সেই ছবিকেই বিদ্রূপ করে গিরিরাজের ট্যুইট, “একই রকম উদ্দীপনায় নবরাত্রি পালনের আয়োজন হলে ছবিটা কী সুন্দর হত! কেন নিজেদের ধর্মীয় বিশ্বাস, আচার-আচরণ উপেক্ষা করে এমন ভান?”

নীতীশ গিরিরাজের সেই কটাক্ষ উড়িয়ে বলেন, ‘‘খবরে থাকার জন্য কেউ কেউ এমন করেন!’’ গিরিরাজকে আক্রমণ করে জেডিইউ মুখপাত্র সঞ্জয় সিংহের বক্তব্য, “গুরুত্বপূর্ণ রাজনৈতিক নেতাদের বক্তব্যে আরও সহিষ্ণুতা দরকার।” এলজেপি নেতা চিরাগ বলেন, “সমস্ত ধর্মের উৎসব পালনই আমাদের রীতি।”

শেষমেশ পরিস্থিতি সামলাতে মাঠে নামেন বিজেপির সর্বভারতীয় সভাপতি অমিত শাহ। তিনি গিরিরাজকে এমন মন্তব্য থেকে বিরত থাকার পরামর্শ দিয়েছেন বলে জানা গিয়েছে।

তবে এই বিতর্কের মধ্যেই মাথাচাড়া দিয়ে উঠেছে, নীতীশের বিজেপি সঙ্গ ছেড়ে লালুর হাত ধরার প্রসঙ্গ। বিজেপির সঙ্গে আসন সমঝোতা করে বিহারে লোকসভা ভোট লড়েছে জেডিইউ। কিন্তু কেন্দ্রীয় মন্ত্রিসভায় অংশ নিয়ে সরকারে শামিল হয়নি নীতীশ কুমারের নেতৃত্বাধীন জেডিইউ। রাজনৈতিক মহলের ব্যাখ্যা, সেই সুযোগকে কাজে লাগাতে চাইছে আরজেডি।

মহাজোটে ফেরার প্রস্তাব যে নীতীশকে দেওয়া হয়েছে সে কথা মেনে নিয়েছেন আরজেডির রঘুবংশপ্রসাদ। তিনি জানান, এ বার মহাজোটে ফেরার সময় হয়েছে। না হলে নীতীশকে শুধু অপমান করবে বিজেপি।

কোথাকার জল কোথায় গড়ায়, সে দিকেই তাকিয়ে এখন রাজনৈতিক মহল।

(জাস্ট দুনিয়ার ফেসবুক পেজ লাইক করতে ক্লিক করুন)

Be the first to comment on "নীতীশ কুমার এবং সুশীল মোদীদের কটাক্ষ করে টুইট গিরিরাজের, আসরে অমিত শাহ"

Leave a comment

Your email address will not be published.


*