অ্যান্টি স্যাটেলাইট মিসাইল সফল, অন্তরীক্ষ মহাশক্তি হিসাবে ভারতের প্রতিষ্ঠা, জানালেন মোদী

অ্যান্টি স্যাটেলাইট মিসাইলজাতির উদ্দেশে ভাষণ দিচ্ছেন মোদী।

জাস্ট দুনিয়া ডেস্ক: অ্যান্টি স্যাটেলাইট মিসাইল সফল ভাবে পরীক্ষা করল ভারত। বুধবার দুপুরে জাতির উদ্দেশে ভাষণ দিয়ে এ কথা জানিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী। তাঁর কথায়: ‘‘ভারত আজ অন্তরীক্ষ মহাশক্তি হিসেবে নিজেকে প্রতিষ্ঠিত করল।’’

এ দিন বেলা ঠিক ১১টা ২৩ মিনিটে প্রধানমন্ত্রী সোশ্যাল মিডিয়ায় ঘোষণা করেন, পৌনে ১২টা থেকে ১২টার মধ্যে তিনি গুরুত্বপূর্ণ বার্তা নিয়ে দেশবাসীর মুখোমুখি হবেন। ভাষণ দেবেন জাতির উদ্দেশে। টেলিভিশন, রেডিও এবং সোশ্যাল মিডিয়ায় সেই ভাষণ শোনার জন্য তিনি তাঁর ‘প্রিয় দেশবাসী’কে অনুরোধ করেন।

সঙ্গে ঢি ঢি পড়ে যায় দেশ জুড়ে। শুরু হয় চূড়ান্ত পর্যায়ের জল্পনা। প্রধানমন্ত্রী দেশবাসীকে কী জানাবেন? এর আগে ২০১৬-র ৮ নভেম্বর তিনি দেশবাসীর উদ্দেশে ভাষণ দেওয়ার সময় ঘোষণা করেছিলেন, নোটবন্দির কথা। এ দিন সে রকম ‘আশঙ্কা’ও তৈরি হয়। কেউ কেউ আবার যুদ্ধ সংক্রান্ত কোনও ঘোষণা করতে পারেন প্রধানমন্ত্রী, এমনটা আলোচনা শুরু করেন। ১২টা বেজে গেলেও প্রধানমন্ত্রী বক্তব্য নিয়ে হাজির হচ্ছেন না বলে সেই জল্পনার গরু গাছে ওঠা শুরু করে। নির্ধারিত সময়ের বেশ কিছুটা পরে বেলা ১২টা ১৭ মিনিটে ভাষণ দেওয়া শুরু করলেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী।

জানালেন, উপগ্রহ-বিধ্বংসী ক্ষেপণাস্ত্র বা অ্যান্টি স্যাটেলাইট মিসাইল সফল ভাবে পরীক্ষা করেছে ভারত। বুধবার এস্যাট নামের ওই ক্ষেপণাস্ত্র দিয়েই মহাকাশে ভাসমান একটি কৃত্রিম উপগ্রহকে এ দিন ধ্বংস করা হয়েছে। এ কথা আনুষ্ঠানিক ভাবে ঘোষণা করার জন্যই প্রধানমন্ত্রী মোদী এ দিন জাতির উদ্দেশে ভাষণ দেন।

এই ‘মিশন শক্তি’-র জোরে স্থল, জল, আকাশ, সাইবারের পর মহাকাশ যুদ্ধেও মহাশক্তি হিসেবে আত্মপ্রকাশ করল ভারত। আমেরিকা, রাশিয়া এবং চিনের পরে চতুর্থ দেশ হিসেবে ভারতের এই সাফল্যের জন্য মোদী অভিবাদন জানিয়েছেন প্রতিরক্ষা গবেষণা সংস্থা বা ডিআরডিও-র বিজ্ঞানীদের। কিন্তু বিজেপি এর পুরো কৃতিত্বই দিয়েছে মোদীকে।

বিজ্ঞানের আরও খবর পড়তে এখানে ক্লিক করুন

এ দিন জাতির উদ্দেশে দেওয়া ভাষণের শুরুতেই প্রধানমন্ত্রী বলেন, ‘‘ভারত আজ অন্তরীক্ষ মহাশক্তি হিসেবে নিজেকে প্রতিষ্ঠিত করল। গর্বের দিন।’’ তিনি আরও বলেন, ‘‘এত দিন আমেরিকা, রাশিয়া এবং চিনের এই শক্তি ছিল। এ বার উঠল চতুর্থ দেশ হিসাবে ভারতও অন্?তম শক্তিধর হয়ে উঠল। প্রত্যেক ভারতবাসীর জন্য এটা গর্বের।’’

ডিআরডিও ওই ক্ষেপণাস্ত্র তৈরি করেছে। ক্ষেপণাস্ত্রটি যে উপগ্রহকে ধ্বংস করেছে সেটি ভারতীয়। এই অভিযানের নাম ‘মিশন শক্তি’। অভিযানের সাফল্যের জন্য ডিআরডিওকে অভিনন্দন জানিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী। তাঁর ভাষণ শেষ হতেই আন্তর্জাতিক মহলকে বার্তা দিয়েছে ভারতীয় বিদেশ মন্ত্রক।

দেশের এই সাফল্যে ডিআরডিওকে অভিনন্দন জানিয়েছে প্রায় সব রাজনৈতিক দল। ডিআরডিও-কে অভিনন্দন জানানোর পাশাপাশি প্রধানমন্ত্রীকে ‘বিশ্ব নাট্য দিবস’-এর শুভেচ্ছা জানিয়ে কটাক্ষ করেছেন রাহুল গাঁধী। তিনি টুইটারে লিখেছেন, ‘‘শাবাশ ডিআরডিও। আপনাদের জন্য গর্বিত। একই সঙ্গে প্রধানমন্ত্রীকে জানাই বিশ্ব নাট্য দিবসের শুভেচ্ছা।’’

আর মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় লিখেছেন, ‘‘ ভাবছিলাম উনি হয়তো বলবেন, আর ভোটে দাঁড়াবেন না! মনে হচ্ছিল, বজ্রবিদ্যুৎ-সহ বৃষ্টি হবে। ছোট্ট মেঘও তো দেখা গেল না!’’ তিনিও বিষয়টিকে ‘নাটক’ বলেই অভিহিত করেছেন।

জাস্ট দুনিয়ার ফেসবুক পেজ লাইক করতে ক্লিক করুন

Be the first to comment on "অ্যান্টি স্যাটেলাইট মিসাইল সফল, অন্তরীক্ষ মহাশক্তি হিসাবে ভারতের প্রতিষ্ঠা, জানালেন মোদী"

Leave a comment

Your email address will not be published.


*