স্ত্রীকে ফেসবুকে কুৎসিত মন্তব্য, থানায় ঢুকে যুবককে বেধড়ক মার জেলাশাসকের

স্ত্রীকে ফেসবুকে কুৎসিত মন্তব্যনন্দিনী এবং নিখিল

জাস্ট দুনিয়া ডেস্ক: স্ত্রীকে ফেসবুকে কুৎসিত মন্তব্য করায় থানার ভিতরে ঢুকে এক যুবককে বেধড়ক মারধর করার অভিযোগ উঠল আলিপুরদুয়ারের জেলাশাসক নিখিল নির্মলের বিরুদ্ধে। তাঁর স্ত্রী নন্দিনীও সঙ্গে ছিলেন। তাঁর বিরুদ্ধেও ওই যুবককে মারধরের অভিযোগ উঠেছে। ঘটনার কিছু পরেই ফালাকাটা থানার ভিতরের মারধরের ওই দৃশ্যের ভিডিও ভাইরাল হয়ে যায় সোশ্যাল মিডিয়ায়। তার পর থেকেই সমালোচনার ঝড় উঠেছে ওই জেলাশাসক এবং তাঁর স্ত্রীর বিরুদ্ধে। আইন নিজের হাতে কী ভাবে তুলে নিলেন এক জন জেলাশাসক, সেই প্রশ্নও উঠছে।

অভিযুক্ত যুবকের নাম বিনোদ সরকার। জেলাশাসকের স্ত্রীর অভিযোগ পেয়ে ওই যুবককে আটক করে পুলিশ। তা জানতে পেরেই সস্ত্রীর ফালাকাটা থানায় চলে আসেন জেলাশাসক নিখিল নির্মল। তার পরে বেধড়ক মারধর শুরু করেন ওই যুবককে। ভিডিওয় তাঁকে বলতে শোনা যায় যে, তাঁর জেলায় তাঁর বিরুদ্ধে কেউ কোনও কথা বলবে না। শুধু নিখিল নির্মল নন, ওই যুবককে মারধর করেন তাঁর স্ত্রী-ও। এবং তাকে রীতিমতো জেরা করতে শুরু করে দেন যে, কার বুদ্ধিতে ওই যুবক ফেসবুকে অশালীন মন্তব্য করেছেন। গোটা ঘটনাটিই ঘটে পুলিশের সামনে।

ফালাকাটা থানার ওই মারধরের ঘটনার ভিডিও সোশাল মিডিয়ায় ভাইরাল হতেই সোমবার জেলাশাসক নিখিল নির্মলকে বাধ্যতামূলক ছুটিতে পাঠানো হয়েছে। তবে একই সঙ্গে প্রশ্ন উঠেছে ফালাকাটা থানার আইসি-কেই বা কেন ছুটিতে পাঠানো হবে না। কারণ, তাঁর সামনেই ঘটনাটি ঘটেছে এবং তিনি কোনও ভাবেই জেলাশাসককে বাধা দেননি।

এ ব্যাপারে জেলা শাসকের কোনও প্রতিক্রিয়া এখনও পাওয়া যায়নি। তবে জেলা প্রশাসনের একাধিক কর্তার বক্তব্য, স্ত্রী-র সম্পর্কে অশালীন মন্তব্য শুনে হয়তো মেজাজ ঠিক রাখতে পারেননি জেলাশাসক। তাঁর বয়স কম। অভিজ্ঞতাও কম। কিন্তু, আইন নিজের হাতে তুলে নিয়ে ৎএ ঠিক করেননি জেলাশাসক, সেটাও মানছেন ওঁরা।

দেখুন সেই ভিডিও…

আইএএস পরীক্ষায় উত্তীর্ণ হওয়ার পর প্রশাসনিক প্রশিক্ষণের সময়ে জেলাশাসকদের সহিষ্ণুতার পাঠ পড়ানো হয়। তার চেয়েও বড় কথা হল, জেলা শাসক নিজেই যদি আইন নিজের হাতে তুলে নেন এবং পুলিশের কাজ নিজেই করে ফেলেন, তা হলে সমাজে কী বার্তা যাবে? তা ছাড়া মারধরের সময় তিনি যে ধরনের মন্তব্য করেছেন তা একেবারেই অনভিপ্রেত বলে মনে করছেন অনেকে।

(রাজ্যের নানা প্রান্তের খবর পড়তে এখানে ক্লিক করুন)

Be the first to comment on "স্ত্রীকে ফেসবুকে কুৎসিত মন্তব্য, থানায় ঢুকে যুবককে বেধড়ক মার জেলাশাসকের"

Leave a comment

Your email address will not be published.


*