প্রয়াত মৃণাল সেন, বাংলা সিনেমায় একটা যুগের অবসান

প্রয়াত মৃণাল সেন

জাস্ট দুনিয়া ডেস্ক: প্রয়াত মৃণাল সেন, চলচিত্র জগতে নক্ষত্র পতন হয়ে গেল ২০১৮-র শেষে। চলে গেলেন মৃণাল সেন। আর তৈরি হবে না মৃণাল সেন ঘরানার ছবি। দীর্ঘ দিন ধরেই কোনও কাজ করছিলেন না। অসুস্থ ছিলেন। কিছুটা বয়সের ভারেই। রবিবার নিজের বাড়িতেই হৃদরোগে আক্রান্ত হন তিনি। এ বার আর শেষ রক্ষা হল না। চলে গেলেন মৃণাল সেন।

৯৫ বছর বয়সে শেষ নিঃশ্বাস ত্যাগ করলেন মৃণাল সেন। জন্ম হয়েছিল ১৯২৩ সালে বাংলাদেশের ফরিদপুরে। বাংলাদেশ থেকে কলকাতায় চলে আসেন পড়াশোনার জন্য। স্কটিশচার্চ, কলকাতা বিশ্ববিদ্যালয় ঘুরে ঢুকে পড়েন সিনেমার জগতে। প্রথম ছবি ১৯৫৫ সালে। ছবির নাম ‘রাত ভোর’। কিন্তু তাঁকে বাংলা ছবির জগতে পরিচিতি দেয় ‘নীল আকাশের নীচে’।

এর পর আর পিছন ফিরে তাকাতে হয়নি তাঁকে। একের পর এক সিনেমা দেশের গণ্ডি পেরিয়ে পৌঁছে যায় বিদেশের দর্শকদের কাছে। আসতে শুরু করে পুরস্কার। তৈরি হয় মৃণাল সেন ঘরানা। তখন বাংলা ইন্ডাস্ট্রিতে জাঁকিয়ে কাজ করছেন সত্যজিৎ রায়। ঋত্বিক ঘটক আগেই তাঁর জায়গা তৈরি করে ফেলেছেন। তার মধ্যেই আরও এক নতুন সিনেমার জগত নিয়ে বাংলার মানুষকে মুগ্ধ করলেন মৃণাল সেন।

অ্যালেক পদমসি প্রয়াত হলেন

প্রখ্যাত পরিচালকদের সঙ্গে তুলনায় বার বার পড়তে হয়েছে। কিন্তু সেটা তাঁর চলাকে কখনও থামাতে পারেনি। একের পর এক মন ছুঁয়ে যাওয়া সিনেমা দিয়ে গিয়েছেন তিনি। পেয়েছেন পদ্মভূষণ। গত বছরই হারিয়েছিলেন স্ত্রীকে। এক বছরের মধ্যেই তিনিই হাঁটা লাগালেন মৃত্যু লোকে।

বড়দিনেই চলে গেলেন কলকাতার যিশুর স্রষ্টা নীরেন্দ্রনাথ চক্রবর্তী

মৃণাল সেনের প্রয়ানের খবরে শোকবার্তা পাঠালেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়, ‘‘বিশিষ্ট চিত্রপরিচালক মৃণাল সেনের প্রয়াণে আমি গভীর শোক প্রকাশ করছি। তিনি আজ ৯৫ বছর বয়সে  কলকাতায় শেষ নিঃশ্বাস ত্যাগ করেন। তাঁর মৃত্যুতে চলচ্চিত্র জগতের অপূরণীয় ক্ষতি হল। আমি শ্রী সেনের পরিবার-পরিজন ও অনুরাগীদের প্রতি সমবেদনা জানাচ্ছি।’’

মৃণাল সেনের পুত্র কুণাল সেন এই মুহূর্তে রয়েছেন শিকাগোতে। তিনি না আসা পর্যন্ত শেষকৃত্য করা হবে না। তত দিন মৃণাল সেনের মরদেহ রাখা হবে পিস ওয়ার্ল্ডে।

Be the first to comment on "প্রয়াত মৃণাল সেন, বাংলা সিনেমায় একটা যুগের অবসান"

Leave a comment

Your email address will not be published.


*