রবিবার ডার্বি, জিতলেই আই লিগ চ্যাম্পিয়নশিপের লড়াইয়ে ফিরে আসবে দল

রবিবার ডার্বিযৌথ সাংবাদিক সম্মেলন ডার্বির আগে। ছবি: ইস্টবেঙ্গলের ফেসবুক পেজ থেকে

জাস্ট দুনিয়া ব্যুরো: রবিবার ডার্বি , মানে সকাল থেকে দুই দলের অনুশীলনে সমর্থকদের উৎসবের শুরু। ঢাকঢোল, রঙ-তুলি, পতাকা নিয়ে ওরা হাজির হয়ে যায় প্রিয় দলের অনুশীলনে। এদিনও তার অন্যথা হয়নি। দলকে তাতিয়ে একরাতের অপেক্ষা। রবিবার দুপুর থেকে আবার সবাই মাঠমুখি। যুবভারতীয় গ্যালারি ভরাতে তৈরি ইস্টবেঙ্গলমোহনবাগান সমর্থকরা।

আর মাত্র কয়েক ঘন্টার অপেক্ষা তার পরই লিগের প্রথম বড় ম্যাচে মুখোমুখি হবে দুই প্রতিদ্বন্দ্বী ইস্টবেঙ্গল এবং মোহনবাগান। লিগ টেবিলের ষষ্ঠ এবং অষ্টম স্থানে থাকা দুই দলের লড়াই। জিতলেই আবার ঢুকে পড়া চ্যাম্পিয়নশিপের লড়াইয়ে।

শনিবার সল্টলেকের প্র্যাকটিস গ্রাউন্ডে চূড়ান্ত মহড়া সেরে নিলেন ইস্টবেঙ্গল কোচ আলেজান্দ্রো মেনেন্দেজ গার্সিয়া। এক ঘন্টার অনুশীলনে মাত্র প্রথম পনেরো মিনিট সাংবাদিকদের জন্য দরজা খোলা ছিল ইস্টবেঙ্গলের অনুশীলনে। জানা গেল তার পর ডিফেন্স মেরামতির জন্য বোরহা পিরেজ গোমেজের সঙ্গে বারবার সালাম রঞ্জন সিং এবং জনি অ্যাকোস্টাকে খেলিয়ে দেখে নিয়েছেন তিনি। নতুন আসা বিদেশি জিমি স্যান্টোস কোলাডোকে দেখা যায় কখনও উইথড্রল স্ট্রাইকারের ভূমিকায়, কখনও আবার উইং হাফের জায়গায়।

পার্থে দ্বিতীয় টেস্ট শুরু হয়ে গিয়েছে

অনুশীলনে ইস্টবেঙ্গল

ইস্টবেঙ্গলের হটসিটে বসা আলেজান্দ্রো অল্প কিছু দিনেই বুঝে গিয়েছেন ভারতীয় ফুটবলে কলকাতা ডার্বির গুরুত্ব কিতটা। এদিন বলেও দিলেন, “অন্যান্য ম্যাচের তুলনায় এই ম্যাচ স্পেশ্যাল। এই ম্যাচকে ঘিরে সমর্থকদের উত্তেজনা দেখেছি, স্পেনের মতোই এখানেও একই রকম গুরুত্বপূর্ণ ডার্বি।”

অন্যদিকে মোহনবাগানে ডার্বির উত্তেজনা স্বত্বেও খোলামেলা আবহ। দেড় ঘন্টার অনুশীলনে মূলত ফিজিক্যাল ট্রেনিংয়ের উপর জোড় দেন কোচ। পাশাপাশি নিজেদের মধ্যেই হ্যান্ডবল প্র্যাকটিস করেন কিসেকা-কিংসলেরা। চোটের কারণে বড় ম্যাচ থেকে সুখ

অনুশীলনে মোহনবাগান

দেব সিং এবং পিন্টু মাহাতো সোনি নর্দি।

ইস্টবেঙ্গল কোচ তার ফর্মেশনে বদল আনাতে পারে। সেন্ট্রাল ডিফেন্সে বোরহা পিরেজের সঙ্গে বিশ্বকাপার জনি অ্যাকোস্টা শুরু করতে পারেন। দুই ব্যাকে খেলতে দেখা যেতে পারে চুলোভা এবং মনোজ মহম্মদকে। ডিফেন্সিভ স্ক্রিন হিসেবে খেলবেন কমলপ্রীত সিং। দুই হাফে খেলতে পারেন ইয়ামি লংলাভ  এবং লালডানমাওয়াইয়া রালতে। সেন্ট্রাল মিডফেল্ডে কাশিম আয়দারা এবং অধিনায়ক লালরিনডিকা রালতে। আক্রমণে একা জবি জাস্টিন।

মোহনবাগান ট্র্যাডিশানাল ৪-৪-২ ছকেই বড় ম্যাচে দল নামাতে পারে। সেন্ট্রাল ডিফেন্সে থাকবেন কিংসলে ওমুগবেমে এবং কিম কিমা। দুই সাইডব্যাকে খেলতে পারেন অরিজিৎ বাগুই এবং অভিষেক আম্বেকার। মাঝমাঠে ইউটা কিনোয়াকির সঙ্গে ওমর আলহুসেইনি। দুই উইংয়ে এটিকে থেকে লোনে নেওয়া শেখ ফৈয়াজের সঙ্গে থাকবেন আজহারউদ্দিন মল্লিক। দুই স্ট্রাইকার ডিপান্ডা ডিকা এবং হেনরি কিসেকা থাকবেন আপফ্রন্টে। গোলে শিলটন পাল।

মোহনবাগান কোচ শঙ্করলাল চক্রবর্তী বলেন, “ইস্টবেঙ্গলের কোচের সম্পর্কে বলার মতো কোনও জায়গায় নেই আমার। আমরা স্বপ্ন দেখি বার্সেলোনা-রিয়াল মাদ্রিদের মতো ফুটবল খেলার। ওদের কোচেরা কী স্ট্র্যাটেজিতে দলকে খেলায়, তা থেকে নিজেরা শেখার চেষ্টা করি। এখানে রিয়ালের মতো দলের সঙ্গে যুক্ত থাকা আলেজান্দ্রো নিজে কোচিং করাচ্ছেন ইস্টবেঙ্গলে।”

Be the first to comment on "রবিবার ডার্বি, জিতলেই আই লিগ চ্যাম্পিয়নশিপের লড়াইয়ে ফিরে আসবে দল"

Leave a comment

Your email address will not be published.


*