হ্যাকারদের দখলে হোটেলের ডেটাবেস, ক্ষতিগ্রস্থ ৫০০ মিলিয়ন

হ্যাকারদের দখলেম্যারিয়ট হোটেলের টুইটার পেজ থেকে নেওয়া ছবি।

জাস্ট দুনিয়া ডেস্ক:  হ্যাকারদের দখলে অন-লাইন আদানপ্রদান। ২০১৪ থেকে প্রায় ৫০০ মিলিয়ন অতিথির তথ্য চুরি হয়ে গিয়েছে তাদের ওয়েব সাইট থেকে। এমনটাই জানিয়েছে হোটেল ম্যারিয়ট ইন্টারন্যাশনাল। স্টারউড হোটেলের রিজার্ভেশন ড্যাটাবেস থেকে এই সব তথ্য হাতিয়েছে হ্যাকাররা।

হোটেলের তরফেই জানানো হয়েছে সংস্থার ওয়েব সাইট থেকে হ্যাকাররা অতিথিদের যাবতীয় তথ্য চুরি করে নিয়েছে। তার মধ্যে রয়েছে তাদের ব্যাক্তিগত তথ্য থেকে পাসপোর্টের সমস্ত তথ্যও। ফোন নম্বর, ই-মেল। এর মধ্যে ক্রিডিট কার্ডের তথ্য থাকার আশংকাও করছে কর্তৃপক্ষ।

বিভিন্ন কারণে এই সংস্থা শেয়ার মূল্য ছয় শতাংশ পড়ে গিয়েছে।

সরে দাঁড়ালেন ফ্লিপকার্টের অন্যতম প্রতিষ্ঠাতা বিন্নি বনশল

সংস্থার তরফে জানানো হয়েছে, ৩২৭ মিলিয়ন অতিথি যাঁরা কোথাও না কোথাও এই হোটেলে কখনও না কখনও থেকেছেন তাঁদের পাসপোর্টের তথ্য, ফোন নম্বর ও ই-মেল চলে গিয়েছে হ্যাকারদের কবলে। বাকিদের আশংঙ্কা করা হচ্ছে ক্রেডিট কার্ড তথ্যও হাতিয়ে নিয়েছে হ্যাকাররা।

এই সংস্থা ২০১৬ সালে স্টারউড কিনে নেয়। তার আগে থেকেই শুরু হয়ে গিয়েছিল হ্যাকারদের কার্য কলাপ। ইতিমধ্যেই আইনি পদক্ষেপ নেওয়া হয়েছে সংস্থার তরফে। শুরু হয়েছে তদন্ত। শুক্রবার থেকে ক্ষতিগ্রস্ত অতিথি ই-মেলে জানানো হচ্ছে বিষয়টি।

ম্যারিয়টের মুখপাত্র জেফ ফ্লাহার্টি রয়টার্সকে জানিয়েছেন, ‘‘আমরা এখনও তদন্ত করছি। তাই এখনই বলা সম্ভভ নয় কোন কোন হোটেল রয়েছে এই তালিকায়। এখনও পর্যন্ত জানতে পেরেছি শুধু স্টারউড ব্র্যান্ডের হোটেলই এই হ্যাকারদের শিকার।’’

গত বছর আরও দুটো আন্তজার্তিক হোটেল গ্রুপ এই হ্যাকারদের শিকার হয়েছিল। হায়াতের ১১টি দেশের ৪১টি হোটেলের ডেটাবেস হ্যাকারদের দখলে চলে গিয়েছিল।

Be the first to comment on "হ্যাকারদের দখলে হোটেলের ডেটাবেস, ক্ষতিগ্রস্থ ৫০০ মিলিয়ন"

Leave a comment

Your email address will not be published.


*