পাকিস্তানের চর সন্দেহে গ্রেফতার ব্রক্ষ্মসের বিজ্ঞানী, নজরে আরও দুই

গ্রেফতার ব্রক্ষ্মসের বিজ্ঞানী

জাস্ট দুনিয়া ডেস্ক: গ্রেফতার ব্রক্ষ্মসের বিজ্ঞানী। পাকিস্তানের হয়ে গোয়েন্দাগিরির অভিযোগে । মহারাষ্ট্রের নাগপুরে ব্রক্ষ্মস অ্যারোস্পেস প্রাইভেট লিমিটেডের হয়ে কাজ করতেন নিশান্ত আগরওয়াল। সোমবার তাঁকে গ্রেফতার করা হয়। কারণ হিসেবে দেখানো হয়েছে এই ব্যক্তি পাকিস্তানের গোয়েন্দার সংস্থা আইএসআই এবং অন্যান্য দেশের হয়ে গোয়েন্দাগিরি করতেন।

নাগপুরের ব্রক্ষ্মসের মিসাইল বিভাগে চার বছর ধরে টেকনিক্যাল রিসার্চার হিসেবে কাজ করছিলেন নিশান্ত আগরওয়াল। কুরুক্ষেত্রের ন্যাশনাল ইনস্টিটিউট অব টেকনোলজি থেকে পাশ করেছিলেন তিনি। সেখানকার গোল্ড মেডেলিস্ট ছাত্র তিনি। দেশের প্রতিশ্রুতিবাণ ইঞ্জিনিয়ার হিসেবেই এখানে যোগ দিয়েছিলেন তিনি।

যা খবর গত সপ্তাহেই বিয়ে করেছিলেন তিনি। আর সোমবারই গ্রেফতার হয়ে গেলেন মিলিটারি ইন্টিলিজেন্স, উত্তরপ্রদেশ ও মহারাষ্ট্র পুলিশের যুগ্ম অপারেশনে। পুলিশ এ বার তদন্তে নেমেছে এটা বোঝার জন্য যে কোনও মহিলার নামে ফেসবুক অ্যাকাউন্ট করে তাঁকে ফাঁসানো হয়েছে কিনা। এক কথায় তিনি ‘হানি ট্র্যাপড’ হয়েছেন কিনা। যে মহিলার অ্যাকাউন্ট আইডি উদ্ধার করা হয়েছে পাকিস্তানে।

আশঙ্কাকে বেশ খানিকটা উস্কে দিল আবহাওয়া দফতরের পূর্বাভাস

উত্তর প্রদেশ অ্যান্টি টেরর স্কোয়াডের মুখ্য আধিকারিক অসীম অরুণ বলেন, ‘‘বিষয়টি খুবই সংবেদনশীল। যা ওর ব্যাক্তিগত কম্পিউটার থেকে পাওয়া গিয়েছে। আমরা ওর ফেসবুক আইডি থেকে পাকিস্তানের আইডি চ্যাটের তথ্য পেয়েছি।’’ সরকারি গোপন তথ্য আইনে তাঁকে অভিযুক্ত করা হয়েছে। এর সঙ্গে তাজ়র বাড়ি ও অফিসের কম্পিউটারও বাজেয়াপ্ত করা হয়েছে।

যা খবর, তাতে নিশান্ত আগরওয়াল গোপন তথ্য ইন্টার সার্ভিস ইন্টিলিজেন্ট অব পাকিস্তান ও অন্যান্য দেশে পাচার করতেন। তিনি যেহেতু ইন্টিগ্রেশন বিভাগে (যেখানে বিভিন্ন উপাদানকে একত্রিত করা হয়) কাজ করতেন। যার ফলেই সন্দেহ আরও প্রবল হয়েছে যে অনেক তথ্য তার কাছে রয়েছে। নিশান্তের সঙ্গে কাণপুরে কর্মরত আরও দু’জন ইঞ্জিনিয়ারের দিকে নজর রাখা হচ্ছে। যাঁরা ডিফেন্স রিসার্চ অ্যান্ড ডেভেলপমেন্ট অর্গানাইজেশনে কর্মরকত।

ব্রক্ষ্মসের ইতিহাসে এরকম ঘটনা এই প্রথম। যেখানে দেশের সুরক্ষার জন্য বিভিন্ন জিনিস তৈরি হয়। যারা বিশ্বের দ্রুততম ক্রুজ মিসাইল তৈরি করে। যা মাটি থেকে, জাহাজ থেকে বিমান থেকে এবং সাবমেরিন থেকেও ছাড়া যায়। ব্রক্ষ্মসের নামকরণ হয়েছিল ব্রক্ষ্মপুত্র নদী এবং মস্কোকে মিলিয়ে।

Be the first to comment on "পাকিস্তানের চর সন্দেহে গ্রেফতার ব্রক্ষ্মসের বিজ্ঞানী, নজরে আরও দুই"

Leave a comment

Your email address will not be published.


*